প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১]ভারতের উত্তরপ্রদেশে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ: নির্যাতিতার পরিবারকে জেলা প্রশাসকের হুমকি

লিহান লিমা: [২] শুক্রবার সকাল থেকেই উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে উত্তরপ্রদেশের নিহত দলিত কন্যার গ্রাম হাথরস। ওই গ্রামে ১৪৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন। সংবাদমাধ্যমকে ভেতরে ঢুকতে বাধা দেওয়া হচ্ছে। গ্রামে ঢোকার মূল রাস্তায় বিশাল পুলিশ বাহিনী দিয়ে ব্যারিকেড করে দেওয়া হয়েছে। নির্যাতিতার পরিবারের সদস্যদের ফোন বন্ধ করে রাখার জন্য বলা হয়েছে এবং যোগাযোগ পুরোপুরি বিচ্ছিন্ন করে দেওয়ার জন্য বেশ কয়েকজনের মোবাইলও ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। দ্য হিন্দু/এনডিটিভি

[৩]হাথরসের জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের বিরুদ্ধে নির্যাতিতার পরিবারকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা গিয়েছে নির্যাতিতার পরিবারকে তিনি বলছেন, ‘মিডিয়ার অর্ধেক তো আজই চলে গিয়েছে, বাকি অর্ধেক কাল চলে যাবে। শুধু আমরাই তোমাদের সঙ্গে থাকব। এ বার তোমার ব্যাপার, তুমি বয়ান বদল করবে কি না!’ জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের এই ভিডিওটি শেয়ার করে কংগ্রেস নেতা রণদীপ সুরজেওয়ালা প্রশ্ন তুলেছেন, ‘এটা কি হুমকি নয়?’ হাথরসের এডিজি (আইনশৃঙ্খলা) দাবি করেছেন, অকারণে ধর্ষণের অভিযোগ তুলে জাতপাতের অশান্তি তৈরি করতে চাইছে একদল লোক। নির্যাতিতার পরিবার সিবিআই তদন্তের দাবী জানিয়েছেন।

[৪]এদিকে এই ঘটনায় স্বউদ্যোগে এলাহাবাদ হাইকোর্টের লখনউ বেঞ্চ হাথরসের মামলা দায়েরের পাশাপাশি উত্তরপ্রদেশ রাজ্য প্রশাসনের শীর্ষকর্তাদের সমন পাঠিয়েছে। এসিএস হোম, এডিজি, হাথরসের জেলাশাসক ও পুলিশ সুপারকে ১২ অক্টোবরের মধ্যে জবাব দিতে বলেছে আদালত।

[৫]হাথরসের নির্যাতিতা তরুণীর পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ১৪ সেপ্টেম্বর দুপুরে মাঠে ঘাস কাটতে গিয়ে চার থেকে পাঁচজন উচ্চবর্ণের যুবকের সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হন তাদের কন্যা। তাকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। ওই তরুণীর ঘাড়ের হাড় এবং শিরদাঁড়া ভেঙে গিয়েছিলো। জিভ থেতলে দেয়া হয়েছিলো। টানা ১৪ দিন হাসপাতালে লড়াই করে মারা যান ওই তরুণী। পরের দিন ওই নির্যাতিতার দেহ তাঁর পরিবারের হাতে না দিয়ে তড়িঘড়ি সৎকার করে পুলিশ। এই ঘটনা দেশজুড়ে সমালোচনার জন্ম দেয়। ওই চার উচ্চবর্ণের অভিযুক্ত যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

[৬]নির্যাতিতা তরুণীর হয়ে ন্যায়বিচারের দাবি জানিয়েছেন বিশিষ্টজন ও রাজনৈতিক নেতারা। বৃহস্পতিবার কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী ও তার বোন প্রিয়াংকা গান্ধী নির্যাতিতার পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার পথে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। এর প্রতিবাদে দেশজুড়ে রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ দেখিয়েছে কংগ্রেস কর্মীরা। শুক্রবার সকালে হাথরসে যাওয়ার পথে আটকানো হয় তৃণমূলের প্রতিনিধি দলকে।

[৭]এদিকে নির্ভয়ার আইনজীবী সীমা কুশওয়া ওই তরুণীর হয়ে লড়ার ঘোষণা দিয়েছেন। তবে তাকেও দলিত পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে বাধা দিয়েছে পুলিশ।

সর্বাধিক পঠিত