প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নুরী জাহানারা: সিরিয়া আরেক বাংলাদেশ হয়েই যেন আমার সামনে এসে দাঁড়ায়

নুরী জাহানারা: নিজের দেশের কবি আসায় ১০জন সিরিয়ান চলে এলো তাকে ফুল দিতে। সেখানে আমাকে দেখে তো তারা বিপাকে। দুজন কবি। তাদের মধ্যে শুধু নিজেদের জনকে কীভাবে ফুল দেয় তারা? সুতরাং আমাকে সবার সামনে একটি গোলাপ কলি উপহার দিলো। অনুষ্ঠান শেষে গোপনে নিজেরা যখন একত্র হলো, তখন নিজেদের কবিকে তোড়াটি উপহার দিলো। আমি এই সিরিয়ানদের স্পর্শকাতরতা দেখে মুগ্ধ। ওই গোলাপ কলিটি পাশের শহর থেকে হাঁচটে পাঁচড়ে, মুখে মাস্ক হাতে গ্লাভস স্বত্ত্বেও নিয়ে এসে ভাসে সাজিয়ে রাখলাম। ঘরের সবাই হাসতে লাগলো। ওরা কি জানে ফুলটি নয় আমি গোটা সিরিয়ার জনগণকে সাথে করে নিয়ে এসেছি? তাদের হৃদয়ের উষ্ণ নম্রতা আমাকে সিরিয়ায় নিয়ে গেছে। আবার মনে পড়ছে ২০১৮ তে আমাকে এক দেশি তার সাথে বেড়াতে নিয়ে গিয়েছিলো। সেখানে আরেক দেশি ব্লগ এডিটর তাকে রাতে চ্যালেঞ্জই করে বসলো তুমি এরে ক্যান আইতে কইছো, এরে তুমি চিনো?

এমন কী যখন ইউরোপীয়রা আমারে দাওয়াত করে আর এই মহামহীম সেখানে থাকেন, তো মনে হয়। এই বুঝি তিনি তাদেরও চ্যালেঞ্জ করে বসলেন, এই তোমরা এরে ক্যান আইতে কইছো, তোমরা কী এরে চিনো। চেনা -অচেনার মাঝে কতো দেশ নিয়ে ঘুরি। একটা দেশ বুকে, আরেকটা ব্যাগে, অন্যটা চোখের জলে, একটি খুব লজ্জার, আরেকটি ভারী গৌরবের। এক একটি দেশ খুব নিভৃতে কাছে এসে বলে, আমাকে চেনো, আমিও তোমার। সিরিয়া যার দেহে একই সাথে নষ্ট জঙ্গীর বীর্য, বুলেটের খোসার আভরণ ও লক্ষ লক্ষ মানুষের অশ্রুজলের প্লাবন। সে তার সন্তানদের মাঝে আরেক বাংলাদেশ হয়েই যেন আমার সামনে এসে দাঁড়ায়। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত