প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] প্রেমিকার সঙ্গে সখ্যতার সন্দেহে খুন করা হয় পল্লী চিকিৎসক টিপুকে

মাটিরাঙ্গা প্রতিনিধি: [২] নিপন ত্রিপুরা নামে এক যুবকের প্রেমিকার সঙ্গে সখ্যতার সন্দেহে তারই পরিকল্পনায় খুন করা হয়েছিল মাটিরাঙ্গা উপজেলা ১০নং মুসলিমপাড়ার পল্লী চিকিৎসক নুর মোহাম্মদ টিপু-কে। ভালবাসা বা প্রেম সংক্রান্ত ঘটনার কারণে তৈরী হওয়া নিষ্ঠুর প্রতিহিংসা থেকেই ছয় সহযোগী নিয়ে হত্যাকান্ডের ঘটনা সম্পাদন করেন নিপন ত্রিপুরা ।

[৩] কোন রকম তথ্য উপাত্ত বিহীন নুর মোহাম্মদ টিপু হত্যাকান্ডের মাত্র ২১ দিনের মাথায় নিরাপত্তা বাহিনীর সহযোগিতায় অত্যান্ত সর্তকতার সহিত অভিযান চালিয়ে হত্যাকান্ডের মূল রহস্য উদঘাটন করতে সক্ষম হয়েছে মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশ । টানা দুই দিনে মাটিরাঙ্গা এবং গুইমারা উপজেলার বিভিন্ন দুর্গম এলাকায় ঝটিকা অভিযান চালিয়ে হত্যাকান্ডে অংশ নেয়া সাত যুবক‘কে আটক করে পুলিশ।

[৪] মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই (নিরস্ত্রঃ) মো. সাইফুল ইসলাম জানান, ঘটনার মুল পরিকল্পনাকারী গুইমারার মাইরুং পাড়ার কুমার ত্রিপুরার ছেলে নিপন ত্রিপুরা (১৭) মাটিরাঙ্গা মিউনিসিপ্যাল মডেল হাইস্কুলের নবম শ্রেনির ছাত্র। তদন্তে প্রাপ্ত মামলার ঘটনার সাথে সরাসরি সম্পৃক্ত মাটিরাঙা ইউনিয়নের কাঠাল পাড়ার সুমন ত্রিপুরা (২০), ডেনী ত্রিপুরা (২৪) তারা দুজন সম্পর্কে আপন ভাই। এছাড়া নীল ত্রিপুরা (২০), দীপন ত্রিপুরা (২৩) উভয়ই সম্পর্কে আপন ভাই । অপরাপর শান্তি ত্রিপুরা (২০) ও স্বপন ত্রিপুরা (২৪) একই এলাকার প্রতিবেশী বন্ধু।

[৫] ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মো. সামসুদ্দিন ভূঁইয়া জানান, বিভিন্ন সোর্স ব্যাবহার করে নিরাপত্তা বাহিনীর সহযোগিতায় পল্লী চিকিৎসক নুর মোহাম্মদ টিপু হত্যাকান্ডে জড়িত ৭ আসামীকে আটক করা হয়েছে। আটককৃততেদর মধ্যে সুমন ত্রিপুরা ও শান্তি ত্রিপুরা হত্যাকান্ডের দায় স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিয়েছে। সম্পাদনা: সাদেক আলী

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত