প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] অবসর জীবনের বিদায়ে নেজামুল হক উপ-সহকারী প্রকৌশলী (জনস্বাস্থ) শেরপুর

তপু সরকার : [২] ৩৫ বছর চাকরি জীবনে একজন ব্যক্তি একটি কাঠামোর মধ্যে অবস্থান করেন। সে কাঠামো তাঁকে যেমন পরিশৃঙ্খল করে রাখে তেমনি তাঁকে নানা উপায়ে সুরক্ষণ দেয়, সুবিধা দেয়।

[৩] বিশেষ করে নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ তাঁকে যে লজিস্টিক সমর্থন দেয়, তা তাঁর জীবনকে অনেক আরামদায়ক করে। তাঁর নির্দিষ্ট বসার জায়গা থাকে, কম্পিউটার, কাগজপত্র, টেলিফোন, গাড়ি, এমনকি বিশেষ ক্ষেত্রে বাড়ি পাওয়া যায়। অবসরে আসার পর এসব আর থাকে না। অবসরপ্রাপ্ত ব্যক্তিকে স্ব-উদ্যোগে এসব জোগাড় করতে হয়। এ কাজটি মোটেই সহজসাধ্য নয়। কর্মকালীন এক পদ থেকে অন্য পদে বদলি হওয়ার সঙ্গে অবসরে যাওয়ার এখানে রয়েছে বিশাল পার্থক্য। প্রায় সব অবসরপ্রাপ্ত ব্যক্তি এ পার্থক্য (অসুবিধা) হাড়ে হাড়ে টের পান। দীর্ঘদিনের চাকুরীর শেষে বিদায়ের এবার বিদায়ের পালা ।

[৪] রোববার শেরপুর সদর উপজেলা অফিসার্স ক্লাবের পক্ষ থেকে আজ জনাব নেজামুল হক উপ-সহকারী প্রকৌশলী( জনস্বাস্থ্য) কে চাকরি থেকে অবসর জনিত বিদায় সংবর্ধনা জানানো হয়।

[৫] চাকুরী জীবনে নেজামুল হক উপ-সহকারী প্রকৌশলী( জনস্বাস্থ্য) তিনি অনেক বড় মনের ভাল মানুষ ছিলেন । নেজামুল সাহেব ৩৫ বছর চাকুরী জীবনে অত্যান্ত নরম স্বভাবের মানুষ ছিলেন । সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত