প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বিসিবি টেরও পায়নি

স্পোর্টস ডেস্ক : [২] বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে নারী দলের হেড কোচ আনজু জেইন এর চুক্তি ছিল চলতি বছরের মার্চ পর্যন্ত। কিন্তু বিশ্বকাপে সালমা – রুমানাদের হতশ্রী পারফরম্যান্স এবং টুর্নামেন্ট চলাকালীন দলের ভেতরে তার অযাচিত কর্তৃত্বের বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড ভারতীয় এই কোচের সঙ্গে আর চুক্তি বাড়াতে আগ্রহ দেখায়নি। বিসিবির মনোভাব বুঝতে আনজুর বেগ পেতে হয়নি। ফলে বাধ্য হয়েই নীরবে নতুন ঠিকানা খুঁজে নিয়েছেন। কোচের বাংলাদেশ ছেড়ে চলে যাওয়া বিসিবি টেরও পায়নি। ভারতের বারদা ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন তার বর্তমান ঠিকানা।এটাও বিসিবি জানে না।

[৩] বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট উইংয়ের চেয়ারম্যান শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল। নারী ক্রিকেট উইংয়ের চেয়ারম্যান নাদেল জানান, ওনার সঙ্গে আমাদের মার্চ পর্যন্ত চুক্তি ছিল। বিশ্বকাপের পারফরম্যান্সের বিষয়ে আমাদের চিন্তা ভাবনা ছিল। সে হয়তো ভেবেছে তার চুক্তি বাড়ানোর সুযোগ নেই এ কারণে নিজে থেকেই চলে গেছে, আমাদের কিন্তু জানায়নি। যেহেতু তার চুক্তির মেয়াদ মার্চ পর্যন্ত ছিল এবং আমরা বাড়াইনি তো তার রিজাইন দেওয়া কিংবা আমাদেরও তাকে টার্মিনেট করার প্রয়োজন পড়েনি।

[৪] এমতাবস্থায় আনজুর বদলি হিসেবে কাকে দেখা যাবে? এমন প্রশ্নের জবাবে নাদেল জানালেন, আমরা এখনও চিন্তা ভাবনা করছি। অবশ্যই বাইরের কাউকে নিব। আর কয়েকটা দিন পরে হয়তবা বলতে পারব। – সারাবাংলা

[৫] প্রসঙ্গত, এশিয়ার চ্যাম্পিয়ন হওয়া সত্ত্বেও গেল ফেব্রুয়ারি-মার্চে অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে বাদ পড়েছে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। চার ম্যাচের একটিতেও জয়ের মুখ দেখেনি সালমা খাতুন ও তার দল। এই দিয়ে টানা তিনটি বিশ্বকাপের আসরে জয়শূন্য থেকে দেশে ফিরতে হয়েছে টাইগ্রিসদের।

[৬] বিশ্বকাপের টিম রিপোর্ট নিয়ে মার্চেই নারী ক্রিকেট টিম ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে বসার কথা ছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে তা আর হয়ে ওঠেনি। এই সুবাদে আনজু জেইন ও তার নতুন ঠিকানা খুঁজে নিয়েছেন। ২০১৮ সালের জুনে ইংলিশ কোচ ডেভিড ক্যাপেলের স্থলাভিষিক্ত হয়েছিলেন আনজু জেইন।

সর্বাধিক পঠিত