প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১]ডিএসইতে ১৩ বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন ৪৩ কোটি টাকার লেনদেন

মো. আখতারুজ্জামান : [২] করোনাভাইরাসের কারণে দেশের উভয় পুঁজিবাজার দুই মাস বন্ধ থাকার পর ৩১ মে লেনদেন শুরু হয়। ওই দিন উত্থান হলেও পরের তিন কার্যদিবসের মতো বৃহস্পতিবারও পতনে শেষ হয়েছে লেনদেন। এদিন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের সব সূচকের পাশাপাশি কমেছে টাকার পরিমাণে লেনদেনও।

[৩] জানা গেছে, বৃস্পতিবার ডিএসইতে মাত্র ৪২ কোটি ৯৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা ১৩ বছর ১ মাস ১১ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন। এর আগে ২০০৭ সালের ২৪ এপ্রিল আজকের চেয়ে কম লেনদেন হয়েছিল। ওই দিন ডিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ৪০ কোটি ৩৯ লাখ টাকার।

[৪] ডিএসই’র প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১০ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৩ হাজার ৯৫৩ পয়েন্টে। ডিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ৩ পয়েন্ট, ডিএসই-৩০ সূচক ৭ পয়েন্ট এবং সিডিএসইটি ৩ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ৯১৬ পয়েন্টে, ১৩২১ পয়েন্টে এবং ৭৮২ পয়েন্টে।

[৫] অপর পুঁজিবাজার সিএসই’র সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৬ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১১ হাজার ২৩৭ পয়েন্টে। সিএসইতে এদিন ১০৩টি প্রতিষ্ঠান লেনদেনে অংশ নিয়েছে। সিএসইতে মাত্র ৪ কোটি ৫৯ লাভ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ