প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] স্বরূপকাঠীতে সরকারি সহায়তার ১০ মেট্রিকটন চালের হিসেবে গড়মিল!

বিপ্লব বিশ্বাস : [২] মরনঘাতী করোনা থেকে বাঁচতে পুরোদেশ লকডাউন। সে অনুযায়ী গত ২৬ মার্চ থেকে পিরোজপুর স্বরূপকাঠীকেও লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। যে কারণে কর্মহীন হয়ে পড়েছে,এ উপজেলা প্রায় দেড় লক্ষ মানুষ। সব থেকে অসহায় ও অর্ধাহারে অনাহের দিন কাটাচ্ছেন এখানকার দৈনিক আয়ের লোকজন। অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাহির হচ্ছেন না মানুষজন তাই দৈনিক আয়ের লোকজনের আয় না থাকায় পড়েছেন বিপাকে।

[৩] যদিও লকডাউনের ৫ দিন পর্যন্ত সরকার স্বরূপকাঠীর ২৫০০ পরিবারের জন্য ২৫ মেট্রিকটন খাদ্য ও ৭৬ হাজার টাকা নগদ সহায়তা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে কিন্তু এসব বরাদ্দ নেছারাবাদ উপজেলায় আসার পরেই ১০ মেট্রিকটন চালের হিসাব মেলানো যাচ্ছে না।

[৪] উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরকার আব্দুল্লাহ বাবুর দাবি সরকারিভাবে ৭৬ হাজার টাকা এবং ১৫ মেট্রিকটন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়ে যা প্রতিটি ইউনিয়নে ৪০ জন দৈনিক আয়ের পরিবারের মাঝে ১০ কেজি করে বন্টন করে দায়া হবে সাথে ৫ কেজি করে আলু ও ২ কেজি ডাল এবং মৎস্য ও প্রাণীসম্পদ মন্ত্রীর বিশেষ ববরাদ্দে ১০ মেট্রিকটন চাল দলীয় ভাবে বিতরণ করা হবে।

[৫] এদিকে জেলা প্রশাসক পিরোজপুর তার ফেসবুক পোষ্টের মাধ্যমে এসহায়তার তালিকা প্রকাশ করেছেন। সে তালিকা থেকে জানাগেছে, দুই ধাপে ২৫শত পরিবারকে ২৫ মেট্রিকটন খাদ্য ও ৭৬ হাজার টাকা সহায়তা প্রদান করা হয়েছে কিন্তু জেলা প্রশাসকের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ফেসবুকে দেয়া তালিকা সম্পূর্ণ সরকারি সহায়তার তালিকা এবং নতুন করে ওখানে আরও ১০ মেট্রিকটন চাল বরাদ্দ হয়েছে।

[৬] এদিকে ইন্দ্রেরহাট খাদ্য গোডাউনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বলেন, সরকারি ভাবে ১০ ইউনিয়ন ও ১ পৌরসভায় ১৫ মেট্রিকটন চাল বরাদ্দ এসেছে যা অনেক ইউপিতে ছাড় করাও হয়েছে।

[৭] মন্ত্রী মহোদয়ের ১০ মেট্রিকটন চাল বরাদ্দ ছিল যা ছাড় করা হয়েছে। এদিকে এখনও সরকারি কোন সহায়তা পায়নি খেটে খাওয়া দৈনিক আয়ের মানুষজন। অনেকেই নামছেন মাছ ধরতে আবার ইজিবাইক নিয়ে রাস্তায় নেমেছেন অনেকেই। পেটের টানে অনাহারে অর্ধাহারে দিন যাপন করছেন অনেক মানুষ। সোহাগদলের আশ্রাব আলীর আকুতি, সরকারি সহায়তায় ভোটার তৈরি নাকরে প্রকৃত অসহায়দের মাঝে বন্টন করা হবে এসব সহায়তা আর বৃত্তবানরা এই মহামারিতে এগিয়ে আসবে গরীব অসহায় মানুষের সাহায্যে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত