প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ২০২০ সালের ল্যাপটপ কেনার সহজ ৫টি টিপস

রাজু আলাউদ্দিন : [২] ২০২০ সালে মোবাইলের পাশাপাশি ল্যাপটপ সমান জনপ্রিয় কারণ সহজে বহনযোগ্য এবং বিদ্যুৎ চলে গেলেও কাজ করা যায়। বাজারে বিভিন্ন মডেলের অনেক ল্যাপটপ রয়েছে তবে বাজেটের সাথে নিজের প্রয়োজনীয় ল্যাপটপটি পেতে নিম্নোক্ত টিপসগুলো অনুসরণ করলে উপকার পেতে পারেন-

[৩] স্ক্রীনঃ ২০২০ সালের ল্যাপটপের স্ক্রীন অবশ্যই ১০৮০পি বা ফুল এইচডি হইয়া উচিৎ। কারণ এই রেজোলিউশানে ওয়েব পেইজ বা ভিডিও অনেক ভাল দেখা যায়। তবে কিছু আলট্রা বা বিজনেস সিরিজের ল্যাপটপ ৪কে হয় যা উচ্চ মানের ভিডিও প্রদর্শন করে কিন্তু ব্যয়বহুল। আর ৭২০পি রেজোলিউশান ল্যাপটপের জন্য এখন স্ট্যান্ডার্ড অর্থাৎ এর নিচে হয় না।

[৪] ব্যাটারিঃ ল্যাপটপের ব্যাটারি সাধারণত ৩ সেলের হয় যা আপনাকে সাধারণত ২-৩ ঘন্টা ব্যাকআপ দিবে তবে বেশি সেলের ব্যাটারিতে আরও ভাল পারফরমেন্স পাবেন। তবে যারা ভ্রমণ করেন তাদের জন্য ৮-১০ ঘণ্টা ব্যাকআপের ল্যাপটপ প্রয়োজন। আপনি ভ্রমণরত অবস্থায় প্রয়োজনীয় কাজ করতে পারবেন। তবে এই ধরনের ল্যাপটপ সাধারণত বিজনেস সিরিজের হওয়ায় দাম তুলনামূলক অনেক বেশি।

[৫] উইন্ডোজঃ সামান্য কিছু বেশি খরচ করে লাইসেন্সযুক্ত উইন্ডোজ সহ ল্যাপটপ কিনুন তাতে আপনি কোন ধরনের সিকিউরিটি জনিত সমস্যায় পড়বেন না। তা না হলে আপনাকে আলাদা করে উইন্ডোজ কিনতে হবে যার বাজার মূল্য প্রায় ১০,০০০ হাজার টাকার উপর। আর কপি করা বা পাইরেটেড উইন্ডোজ চালালে আপনার জন্য ক্ষতির কারণ হতে পারে।

[৬] প্রসেসরঃ আপনি যদি সাধারণ কাজ করেন যেমন ভিডিও দেখা, হাল্কা গেমস, আর ওয়েব ব্রাউজিং তবে কোর আই-৫ এর ওল্ড জেনারেশন কিনুন তাতে সাশ্রয় হবে আর যদি গেমার হন বা গ্রাফিকস ডিজাইনের কাজ করেন তবে কোর আই-৫, আই-৭ এর সর্বশেষ বা এর কাছাকাছি জেনারেশন কিনুন।

[৭] দামের তুলনাঃ হুটহাট কোন অফার দেখে সাথে সাথে কিনবেন না আগে আপনার প্রয়োজন বিবেচনা করুন এবং বিভিন্ন ব্রান্ডের ল্যাপটপ এর দামের তুলনা করুন। আপনি অনলাইন থেকে এগুলো সহজেই করতে পারবেন যেমন দাম তুলনা করার ওয়েবসাইটের দেয়া লিঙ্ক ( https://www.bdstall.com/laptop/)  থেকে সব ধরনের ল্যাপটপের সর্বশেষ প্রাইস দেখতে পারবেন।

[৮] এছাড়া আপনি ল্যাপটপের হার্ডডিস্ক বা এসএসডি, রেম, ডিভিডি ইত্যাদি আপনার প্রয়োজন মত ঠিক করে নিন। এগুলো যে কোন সময় পরিবর্তন করা যায়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত