প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

স্কাইপে বৈঠকে তারেক, যুবদল চট্টগ্রাম বিভাগের তদারকিতে ৭ জনের টিম

চট্টগ্রাম প্রতিদিন প্রতিবেদন : রাজধানী ঢাকার গুলশানে বিএনপির চেয়ারপার্সনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে যুবদলের নবগঠিত কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সাইফুল আলম নীরব ও সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকুর নেতৃত্বে নেতৃবৃন্দ অধীর আগ্রহে অপেক্ষায় আছেন। পিনপতন নীরবতা ভাঙল কথা বলার অনলাইন সফটওয়্যার স্কাইপেতে আসা কল। কল রিসিভ করার পর বড় পর্দায় ভেসে উঠল দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ছবি।

তারেক রহমান হাসিমুখে সালাম দিলেন— আসসালামু আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহ। সব নেতা সমস্বরে উত্তর দিলেন, ওয়ালাইকুম সালাম ওয়ারাহমাতুল্লাহ। তারপর তারেক রহমান প্রশ্ন করলেন, কেমন আছেন আপনারা? আবারও সমস্বরে উত্তর— আলহামদুলিল্লাহ ভালো। এরপর ‘আপনি কেমন আছেন’— জানতে চান যুবদল নেতারা। তারেক রহমান আবারও হেসে জবাব দিলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ, দেশবাসীর দোয়ায় ভালো আছি।’ বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান এরপর শুরু করেন যুবদলের খোঁজখবর নেওয়া।

স্কাইপে বৈঠকে অংশ নেওয়া অনেকেই তারেক রহমানের সামনে নতুন বসেছেন। এক দশকের বেশি সময় দেশের বাইরে থাকা তারেক রহমানের সাথে অনেকের যোগাযোগ ছিল না। তারা ছাত্র অবস্থায় হয়তো কোন কর্মসূচিতে তারেক রহমানের বক্তব্য শোনা কিংবা লাইনে দাঁড়িয়ে সালাম বিনিময়ে সন্তুষ্ট থেকেছেন। স্কাইপেতে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানকে পেয়ে তারা উচ্ছ্বসিত।

সোমবার (১০ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৫টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা এবং পরদিন বিকেল ৫টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত চলে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের সাথে যুবদল নেতৃবৃন্দর স্কাইপে বৈঠক। ৬ ঘন্টার ওই বৈঠকে সাড়ে ৫ ঘন্টার বেশি তারেক রহমান যুবদলের নেতাদের কথা শুনেছেন। মিনিটবিশেকের বেশি তিনি একাই বলেছেন। যুবদলের নেতাদের প্রস্তাবগুলো তিনি নোট করেছেন। আবার কারও প্রস্তাবে বা বক্তব্যে অসঙ্গতি পেলে সেটা নিয়েও কথা বলেছেন।

বৈঠক সূত্রে জানা যায়, যুবদলের ইউনিট, ওয়ার্ড-থানা থেকে শুরু করে নগর এবং ওয়ার্ড, ইউনিয়ন, উপজেলা থেকে জেলা, সর্বস্তরের সাংগঠনিক কমিটিগুলোকে দ্রুততম সময়ের মধ্যে গোছানোর তাগিদ দিয়ে তারেক রহমান যুবদলের সাথে তার দুই দিনের স্কাইপে বৈঠক শেষ করেন। তিনি স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছেন, ‘কোয়ানটিটি নয়, কোয়ালিটি নেতৃত্ব চাই।’

স্কাইপে বৈঠকে নতুন বসা এক নেতা জানান, টানা চার ঘন্টা বৈঠকে এক মুহূর্তের জন্য কেউ ক্লান্ত হয়নি। সবাই প্রাণবন্তভাবে নিজের বক্তব্য উপস্থাপন করেছে। তিনি আমাদের বক্তব্য মনযোগ সহকারে শুনেছেন।

যুবদল সূত্রে জানা গেছে, সংগঠনকে শক্ত করতে প্রতিটি বিভাগের জন্য আলাদা আলাদা টিম গঠন করে দিয়েছেন তারেক রহমান। চট্টগ্রাম বিভাগকে তদারকি করার জন্য যুবদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি ইউসুফ বিন জলিল কালুকে প্রধান করে সাত সদস্যের চট্টগ্রাম বিভাগীয় টিম গঠন করে দিয়েছেন তারেক রহমান।

টিমের অন্য সদস্যরা হলেন মোশাররফ হোসেন দীপ্তি (সহ সভাপতি, চট্টগ্রাম বিভাগ), মাহফুজুর রহমান মিনার (যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, বরিশাল বিভাগ), মনোয়ারুল ইসলাম তিতাস (সহসাধারণ সম্পাদক রংপুর বিভাগ) মোহাম্মদ সাহেদ (সহ সম্পাদক চট্টগ্রাম বিভাগ), মাহবুবুর রহমান জামান (সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক, পটুয়াখালী), মঞ্জুরুল আজিম সুমন (সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক, চট্টগ্রাম বিভাগ)।

এই টিমের সদস্যরা ১০টি ইউনিটের দেখভাল করবেন। ইউনিটগুলো হলো চট্টগ্রাম মহানগর, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা, খাগড়াছড়ি জেলা, রাঙ্গামাটি জেলা, বান্দরবান জেলা, কক্সবাজার জেলা, নোয়াখালী জেলা, ফেনী জেলা ও লক্ষ্মীপুর জেলা।

মূলত বিভাগীয় এই কমিটি যুবদলকে শক্তিশালী করতে তারেক রহমানের নির্দেশনা নিয়ে মাঠে খুব শিগগিরই নামছেন বলে নিশ্চিত করেছেন যুবদলের কেন্দ্রীয় কমিটির একাধিক নেতা।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত