প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নির্বাচিত হলেও ইভিএম নিয়ে আমার বক্তব্য পাল্টাবে না বললেন, ইশরাক হোসেন

তরিকুল ইসলাম : গতকাল রাত থেকে আমরা অভিযোগ পেয়ে আসছিলাম, নির্বাচন মনিটরিং করার জন্য আমাদের কয়েকটি সেল করা হয়েছে। বিভিন্ন কেন্দ্রে সিসিটিভি কানেকশন গুলো কেটে দেয়া হচ্ছিল রাতেই। সেগুলোর কিছু ফুটেজ এবং ছবি আমরা ইতিমধ্যেই শেয়ার করেছি। বংশাল ৩০ নম্বর ওয়ার্ডে ইসাক সরকার আমাদের কাউন্সিলর প্রার্থী।

ওখানে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর যে কর্মীরা রয়েছেন তারা ভোট কেন্দ্রে ঢোকার চেষ্টা করছিল। করুণা কোনভাবেই তারা ওখানে চাপ প্রয়োগ করছিল। আমাদের এক কর্মীকে মেরে মাথা ফাটিয়ে দেয়।বাঁশি জানতে পারার পর তাঁরা প্রতিরোধ গড়ে তোলে। এবং আওয়ামী দুর্বৃত্তদের সেখান থেকে বিতাড়িত করে। এটা জনগণের বিজয়।

এসময়ে ইশরাক বলেন, এভাবে যদি আমরা ভোটকেন্দ্রগুলো পাহারা দিতে পারি। আওয়ামী লীগের একজন সিনিয়র নেতা বলেছেন ভোট কেন্দ্র দখলে রাখতে। তার এই বক্তব্য সংঘাতকে বাড়াতে পারে। আমরা শুনতে পেয়েছি কয়েকটি কেন্দ্রে পোলিং এজেন্টদের ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না। সেটার ব্যবস্থা আমরা অবশ্যই নেব। আমরা ম্যাজিস্ট্রেটদেরকে অভিযোগ করেছি।

বিএনপির মেয়র প্রার্থী বলেন, আমি সকালে ভোট দিয়েছি। এখন আমি সশরীরে কেন্দ্রে কেন্দ্রে ঘুরবো। বিগত নির্বাচনে আমরা দেখেছি সকাল দশটার দিকে ভোটকেন্দ্রগুলো দখল করা হয়। আমি আপনাদের মাধ্যমে বলে দিতে চাই কোনো কিছুই আমাদেরকে আটকাতে পারবেনা। যে কোনো বাধা-বিপত্তি আল্লার নাম করে আমি বাসা থেকে বের হয়েছি। আমার বাবাকে স্মরণ করে বের হচ্ছি। আমি একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবেলা করার জন্য আমি সম্পূর্ণ প্রস্তুত।

আজকে যদি আমাকে হামলার শিকার হতে হয় আহত হতে হয় আহত হবো কিন্তু ভোট কেন্দ্র দখল মুক্ত করার এবং এবং ভোটারদেরকে নিরাপদ ভোট দেয়ার জন্য যা যা করণীয় আমি আজকে করবো এখানে আমি কোন রকম ছাড় দেব না। আমরা সকল ধরনের জরিপে দেখেছি ধানের শীষ ৮০ পার্সেন্ট ৮৫.৯০ পার্সেন্ট এগিয়ে আছে। ভোট গ্রহণ যদি ঠিকমতো সম্পন্ন হয়। আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর প্রতি আহ্বান জানাব আপনারা আপনাদের দায়িত্বটি পালন করুন। নির্বাচন কমিশনের দায়িত্ব পালন করুন। আমরা বিপুল ভোটে জয়লাভ করবো ইনশাআল্লাহ।

ইভিএমে ভোট দেওয়ার ব্যাখ্যা করে ইশরাক বলেন, ইভিএমে আমার ভর্তি সম্পন্ন করতে পেরেছি।তার মানে এই নয় যে ভেতরে আমরা যে আশঙ্কা করেছি প্রকাশ করে আসছি লাম প্রোগ্রামিং এর ভিতরে ত্রুটিযুক্ত প্রোগ্রামিং করা হয়ে থাকতে পারে। যাতে করে পক্ষপাতিত্বমূলক ভোটগ্রহণ হয়। এটা আসলে পরবর্তীতে বোঝা যাবে কি হয়েছে।

বিএনপির মেয়র প্রার্থী বলেন, যদি কোথাও পোলিং এজেন্ট না থেকে থাকে তাহলে আমরা দ্রুততম সময়ের মধ্যে কলেজে ঢুকানোর ব্যবস্থা করব। এবং কেন আসলো না সেটাও আমরা জানার চেষ্টা করব।

ফলাফল মেনে নেওয়ার প্রসঙ্গে ইশরাক বলেন, আমি আগেও বলে আসছি আমি বিপুল ভোটে নির্বাচিত হব। তারপরেও ইভিএম নিয়ে আমার বক্তব্য পাল্টাবে না। আমরা শুরু থেকেই বলে আসছি ইভিএম আস্থা নেই।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত