প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রাজশাহীতে শিশু ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় দু’জনের ফাঁসি

মুসবা তিন্নি : রাজশাহীতে ১০ বছরের শিশু স্বপ্না ওরফে বেলিকে ধর্ষণ ও হত্যা মামলার রায়ে দু’জনের ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। সোমবার দুপুরে রাজশাহীর শিশু ও নারী নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক মনসুর আলম এ রায় ঘোষণা করেন। দণ্ডপ্রাপ্তরা হলো- নগরীর শাহমখদুম থানার পাকুড়িয়া উত্তরপাড়ার সাইদুল ওরফে জ্যাক ও রানা। একইসাথে তাদের প্রত্যেককে এক লাখ টাকা জরিমানারও আদেশ দেয়া হয়েছে।

ফাঁসির আদেশপ্রাপ্ত দুই আসামী জ্যাক ও রানা মামলার এজাহারে জানা গেছে, নগরীর শামখদুম মাঝিগ্রাম এলাকার সিদ্দিক আলীর মেয়ে ও থালতা মাদ্রাসার তৃতীয় শ্রেণীর শিক্ষার্থী স্বপ্না খাতুন ওরফে বেলী ২০১৩ সালের ২৩ আগস্ট পাকুড়িয়া গ্রামে তার ফুফুর বাড়ি বেড়াতে যায়। এরপর ওইদিনই সন্ধ্যায় স্বপ্না একাই বাড়ি ফেরার উদেশ্যে বেরিয়ে যায়। কিন্তু বাড়ি না ফেরায় তাকে খোঁজাখুজি শুরু করে পরিবারের লোকজন।

স্থানীয় লোকজন জানায়, পাকুড়িয়া গ্রামের মৃত বানু মণ্ডলের ছেলে সাইদুল ওরফে জ্যাক ও একই গ্রামের হাসেন আলীর ছেলে রানার পেছনে পেছনে হেঁটে বাড়ি ফিরছিল স্বপ্না। শিশুর সাথে নোশির হাজির আমবাগানে জ্যাক ও রানাকে দেখতে পায় তারা। পরে রাত ৯টার দিকে ওই আমবাগানে স্বপ্নার স্যান্ডেল পাওয়া যায়। এরপরই পাশেই চান মিয়ার কবরস্থানে স্বপ্নার মরদেহ দেখতে পান তার বাবা সিদ্দিক। শিশু স্বপ্না জ্যাক ও রানা ধর্ষণের পর গলা টিপে হত্যা করে, মরদেহ কবরস্থানে ফেলে পালিয়ে যায় । পরদিন এঘটনায় শাহ্ মুখদুম থানায় মামলা করেন স্বপ্নার বাবা সিদ্দিক।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মোজাফফর হোসেন জানান, গ্রেপ্তারের পর থেকে জেলহাজতে ছিল জ্যাক। তবে রায় ঘোষণার সময় দুই আসামীকেই কাঠগড়ায় হাজির করা হয়। রায় ঘোষণার পর দুজনকেই রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়।

এদিকে, আসামীপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট রইস উদ্দিন জানান, এ রায়ের বিরুদ্ধে তারা উচ্চ আদালকে আপিল করবেন।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত