প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নারীর মর্যাদার প্রতি অবমাননা প্রদর্শনকারীরা রাষ্ট্রীয় প্রশ্রয় পাওয়ায় ধর্ষণের মতো ঘটনাগুলোর সুরাহা হওয়া খুবই দুষ্কর হয়ে দাঁড়িয়েছে, বললেন সুলতানা কামাল

আমিরুল ইসলাম : রাজধানীর কুর্মিটোলায় ঢাবি শিক্ষার্থী ধর্ষণের ঘটনাটি অত্যন্ত দুঃখজনক। নারীর যে একটা নাগরিক স্বত্ত্বা আছে,স্বাধীনভাবে চলার অধিকার আছে, সমস্ত অধিকার ভোগ করার অধিকার আছে, এগুলো যদি সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিকভাবে প্রতিষ্ঠিত না হয়ম, তাহলে এ ধরনের ঘটনা ঘটতেই থাকবে বলে মনে করেন তত্ত¡বধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা সুলতানা কামাল।

তিনি বলেন, সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে যাদের কাছ থেকে এর প্রতিকার পাওয়ার কথা, তারা এ ব্যাপারে গুরুত্ব দিয়ে বড় কোনো পদক্ষেপ নেয় না। বিচারহীনতার সংস্কৃতি থাকার কারণেই এ ধরনের ঘটনা ঘটছে। যারা এ ধরনের ঘটনা ঘটাচ্ছে, তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। সামাজিক সাংস্কৃতিকভাবে নারীর সম্মান, মর্যাদা তৈরি করতে পাঠ্যপুস্তক, মানুষের কথাবার্তাসহ, সমস্ত কিছুতে এই বিষয়টাকে প্রয়োগ করতে হবে। আমাদের শীর্ষ পর্যায়ে নারীর প্রতি অত্যন্ত অসম্মানজনক কথাবার্তা বলার অভ্যাস রয়ে গেছে এবং সেটাকে পশ্রয় দেয়া হয়। যে দেশে তেঁতুল হুজুরের পাশে গিয়ে রাষ্ট্রনায়ক বসেন সেদেশে ধর্ষণকারীরা প্রশ্রয় পাবেই। নারী মর্যাদার প্রতি যারা অবমাননা প্রদর্শন করেন তারা যখন রাষ্ট্রীয় প্রশ্রয় পায় তখন এ ধরনের ঘটনাগুলোর সুরাহা হওয়া খুবই দুষ্কর হয়ে ধারায়। সম্পাদনা : আশিক/মাহবুব

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত