প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জিয়া-এরশাদের পর খালেদা-নিজামীও আ.লীগকে শেষ করার যড়ষন্ত্রে ব্যর্থ হয়েছে, বললেন নানক

লালমনিরহাট প্রতিনিধি : আওয়ামী লীগে অনুপ্রবেশকারীদের ঠাঁই হবে না জানিয়ে নানক বলেন, গুটিকয়েক কর্মীর আচার-আচরণের জন্য আমরা শেখ হাসিনার অর্জনকে বিসর্জন দিতে পারি না। অনুপ্রবেশকারীদের দল থেকে বের করে দিতে হবে। দেশ থেকে আওয়ামী লীগ মঙ্গাকে বিদায় দিয়েছে। তা দেখে বিএনপি জামাত নানান যড়ষন্ত্র করছে। জেনারেল জিয়া, জেনারেল এরশাদ, খালেদা জিয়া ও নিজামী আওয়ামী লীগকে শেষ করে দিতে যড়ষন্ত্র করেছেন কিন্তু তারা ব্যর্থ হয়েছে।

বুধবার (১১ ডিসেম্বর) সকালে লালমনিরহাট জেলা পরিষদ ডাকবাংলো মাঠে জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

ভারতের পার্লামেন্টে দেয়া বিজেপির বক্তব্যের জবাবে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর যে বক্তব্য দিয়েছেন তার সমালোচনা করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক।

বিজেপি ক্ষমতায় আসার দিন বিএনপি নেতাদের উচ্ছ্বাস প্রকাশের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে নানক বলেন, ‘বিজেপি যেদিন ক্ষমতায় এসেছিল মির্জা ফখরুল সেদিন রসগোল্লা খেয়েছিলেন। আনন্দে রসগোল্লা খেয়েছিলেন তিনি। মনে করেছিলেন বিজেপি তাদের ক্ষমতায় বসিয়ে দেবে। এখন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ যখন বললেন বিএনপির আমলে বাংলাদেশে সংখ্যালঘু নির্যাতন বেশি হয়েছে, তখন কী আঁতে ঘা লাগে; কলিজায় ঘা লাগে মির্জা ফখরুল সাহেব।’

বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে সংখ্যালঘু নির্যাতনের কথা তুলে ধরে নানক বলেন, হিন্দুদের ওপর বর্বর নির্যাতন করা হয়েছিল, পূর্ণিমার মতো মেয়েকে গণধর্ষণ করা হয়েছিল- ভুলে গেছেন। সংখ্যালঘু হিন্দুদের জীবনকে অতিষ্ঠ করেছিল বিএনপি-জামায়াত।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সংসদ সদস্য মোতাহার হোসেনের সভাপতিত্বে সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনে আরও বক্তব্য দেন সমাজকল্যাণমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, নাইমুজ্জামান মুক্তা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত