প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ভারতে রেশন দোকানে বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ , কেজি ৫৯ রুপি

রাশিদ রিয়াজ : ভারতের পশ্চিমবাংলায় পেঁয়াজের আকাশছোঁয়া দামের কারণে আপাতত পাইকারি বাজার থেকে ভর্তুকি দিয়ে পেঁয়াজ কিনে ৯৩৫টি কাউন্টার থেকে বিক্রি করা হবচ্ছ। কেজি পিছু দেওয়া হচ্ছে ৫০ টাকা ভর্তুকি। প্রতি পরিবারের জন্য এক কেজি করে পেঁয়াজ বরাদ্দ করেছে রাজ্য সরকার। আকাশছোঁয়া দামে রাশ টানতে রোববার থেকে সস্তায় পেঁয়াজ বিক্রি করার কথা আগেই জানিয়েছিল রাজ্য সরকার। জানানো হয় রাজ্যের ৩০০টি স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মাধ্যমে ন্যায্যমূল্যে পেঁয়াজ বিক্রি করা হবে। এরপর রেশন দোকান থেকেও প্রায় হাফ দামেরই অনেক কম টাকায় পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করলো রাজ্য সরকার।

রোববার খাদ্যভবনে পেঁয়াজ নিয়ে জরুরি বৈঠকের পর একথা জানান রাজ্যের মুখ্য কৃষি উপদেষ্টা প্রদীপ মজুমদার। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে রবিবার খাদ্যভবনে বৈঠকে বসেছিলেন কৃষি দফতরের সমস্ত আধিকারিকরা। খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক উপস্থিত না থাকলেও হাজির ছিলেন দফতরের সহ-সচিব, আধিকারিক, রেশন ডিলার অ্যাসোশিয়েশনের কর্তারা এবং সেলফ হেলফ গ্রুপের প্রতিনিধিরাও।

খোলাবাজারে পেঁয়াজ অগ্নিমূল্য। দাম উঠছে কেজি-প্রতি ১২০ থেকে ১৩০ টাকা। পাইকারি বাজারে পেঁয়াজ কার্যত উধাও। যেখানে পোস্তা পাইকারি বাজারে নাসিক-সহ দক্ষিণের রাজ্যগুলি থেকে প্রতিদিন দশ থেকে পনেরো গাড়ি পেঁয়াজ আসে, গত মঙ্গলবার এসেছে মাত্র ছ’গাড়ি। আবার শিয়ালদহ বাজারে মাত্র এক গাড়ি পেঁয়াজ এসেছে। কম আমদানির জেরে খোলাবাজারে দামও উঠছে লাফিয়ে-লাফিয়ে।

কেন এই সংকট তা পরিষ্কার নয় বলে শহরের পাইকারি ব্যবসায়ীদের বক্তব্য। তাঁরা জানিয়েছেন, নাসিক বা দক্ষিণের রাজ্য থেকে পেঁয়াজ আসছেই না। পরিস্থিতি সামাল দিতে কেন্দ্রীয় সরকার বিদেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানির কথা বললেও তা এখনও হয়নি। এই সময়

সর্বাধিক পঠিত