প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

উল্লাপাড়ায় গৃহবধূর চুল কর্তনের ঘটনায় দোষীদের বিষয়ে পদক্ষেপ জানতে চান হাইকোর্ট

মহসীন কবির : মিথ্যা অপবাদ দিয়ে সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় দুই সন্তানের জননীর মাথার চুল বটি দিয়ে কেটে দেওয়ার ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে তা জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট। এ বিষয়ে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন আদালতের নজরে আনার পর রোববার (০৮ নভেম্বর) মৌখিকভাবে এ তথ্য জানতে চেয়েছেন বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কেএম কামরুল কাদেরের হাইকোর্ট বেঞ্চ। আদালতে বিষয়টি নজরে আনেন আইনজীবী ইশরাত হাসান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার।

এর আগে গতকাল ৭ ডিসেম্বর  সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় মিথ্যা অপবাদে এক গৃহবধূর মাথার চুল কাটার ঘটনায় আওয়ামী লীগ নেতাসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ মামলার আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা করা হচ্ছে বলে জানা গেছে।

উল্লাপাড়া মডেল থানার ওসি মীর শাহীন শাহ পারভেজ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, উল্লাপাড়া উপজেলার গজাইল গ্রামের জাহাঙ্গীর হোসেনের স্ত্রী বিলকিস খাতুন (৩৪) ২৫ নভেম্বর সন্ধ্যায় আত্মীয় বাড়ি যাওয়ার পথে একটি বাড়ির সামনে স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুর রশিদ ও তার ৪ সহযোগী মিথ্যা অপবাদ দিয়ে আপত্তিকর অবস্থায় তাকে আটক করে এবং মাছ কাটার বটি দিয়ে জোরপূর্বক তার মাথার চুল কেটে দিয়ে উল্লাস করে তারা। এ ঘটনায় অপর ৪ সহযোগী হলো, গজাইল গ্রামের মুনসুর (৩৮), আব্দুস সালাম (৪৫), নাসির উদ্দিন (৪০) ও শহিদুল ইসলাম (৩২)। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের চেষ্টা করলেও নানা বাঁধার সম্মুখীন হন ওই গৃহবধূ।

অবশেষে ২ ডিসেম্বর রাতে সংশ্লিষ্ট থানায় আ’লীগ নেতাসহ ওই ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। উল্লাপাড়া মডেল থানার মামলা নং ২/২০১৯ইং। এদিকে আওয়ামীলীগ নেতা ও তার সহযোগীদের গৃহবধূর চুল কাটার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। ভিডিওতে ওই আওয়ামী লীগ নেতাসহ ৫ জন গৃহবধূকে বটি দিয়ে চুল কেটে উল্লাস করতে দেখা যায়।

এ বিষয়ে উধুনিয়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুর রশিদ সাংবাদিকদের বলেন, আমি ওই গৃহবধূর মাথার চুল কাটিনি। স্থানীয় একটি মহল ষড়যন্ত্রমূলক ভাবে এই মিথ্যা মামলা দায়ের করানো হয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

বাংলানিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত