প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পেঁয়াজের ‘ঝাঁজ’ বাড়ছেই

আহমেদ শাহেদ : বাণিজ্য মন্ত্রণালয় দাম কমানোর ঘোষণা দিলেও বাড়ছেই পেঁয়াজের দাম । চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জে শুক্রবার মৌসুমের সর্বোচ্চ দাম ৭৫ টাকা কেজি দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে । আর ভারতের পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ৬৮ থেকে ৭০ টাকায়। আর খুচরা বাজারে দেশি পেঁয়াজ ৮০ থেকে ৮৫ টাকা ও ভারতের পেঁয়াজ ৭৫ থেকে ৮০ টাকায় বিক্রি হয়েছে । অথচ বৃহস্পতিবারও টেকনাফ স্থলবন্দরে মিয়ানমার থেকে  ৪৩ মেট্রিক টন পেঁয়াজ এসেছে। সেখানকার আমদানিকারকরা বলছেন, গত ৬ দিনে ঢাকা ও চট্টগ্রামের পাইকারি বাজারে প্রায় ৪০০ টন পেঁয়াজ পাঠিয়েছেন তারা। বৃহস্পতিবার রাতে ভারত থেকেও এসেছে ৮ ট্রাক পেঁয়াজ।
এ ব্যাপারে ক্যাবের কেন্দ্রীয় সহসভাপতি এস এম নাজের হোসাইন বলেন, মন্ত্রণালয়ের ঘোষণার পর সিন্ডিকেট করে কিছু ব্যবসায়ী সরবরাহ কমিয়ে দেয়ায় দাম আরও বেড়েছে। বাজার অস্থির রাখতে মিয়ানমার থেকে আমদানি করা পেঁয়াজও টেকনাফ থেকে চট্টগ্রামের পাইকারি বাজারে আনতে দেয়া হয়নি।  এ কারসাজির যারাসঙ্গে জড়িত তাদের আইনের আওতায় আনতে হবে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রবি ও সোমবার খাতুনগঞ্জে ২০ থেকে ২২টি ট্রাকে ভারত ও মিয়ানমারের অন্তত ৩০০ টন পেঁয়াজ আসে। কিন্তু মঙ্গল ও বুধবার মিয়ানমারের কোনো পেঁয়াজ আসেনি। চাহিদার তুলনায় অপ্রতুল হওয়ায় মঙ্গলবারের পর থেকে আবার বাড়তে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম।
খাতুনগঞ্জে রবি ও সোমবার নতুন পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ৪২ থেকে ৪৫ টাকায়। মন্ত্রণালয়ের ঘোষণার পর বাড়তে থাকে পেঁয়াজের দাম। মঙ্গল ও বুধবার দাম আরও বেড়ে পাইকারি বাজারে প্রতি কেজি ৫০ থেকে ৫৫ টাকায় বিক্রি হয়। বৃহস্পতিবার আরও বেড়ে পেঁয়াজের দাম ছাড়িয়ে যায় ৬০টাকা। শুক্রবার ভারতের নাসিক পুরনো পেঁয়াজ ৬৫ থেকে ৬৮ টাকা ও সাউথ পুরনো পেঁয়াজ ৭০ টাকায় বেচাকেনা হয়। খুচরা বাজারে এ পেঁয়াজ বিক্রি হয় ৭৫ থেকে ৮০ টাকায়।
সরেজমিন দেখা যায়, পেঁয়াজভর্তি সাতটি ট্রাক টেকনাফ স্থলবন্দরে সারিবদ্ধভাবে ছিল। সেগুলো বিকেলে চট্টগ্রাম ও ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে পৌঁছানোর কথা। কিন্তু বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত চট্টগ্রামের মোকামে আসেনি কোনো পেঁয়াজভর্তি ট্রাক। অথচ টেকনাফ শুল্ক্ক বিভাগ জানায়, মিয়ানমার থেকে গত ১৫ সেপ্টেম্বর ১৭৮ দশমিক ১৮০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আসে। এর পরের দিন আসে ৪ দশমিক ৯৪৫ মেট্রিক টন। ১৭ ও ১৮ সেপ্টেম্বর আসে ১৩৩ ও ১৮০ টন পেঁয়াজ। আর ১৯ সেপ্টেম্বর আসে ৪৩ টন পেঁয়াজ। আমদানি করা এসব পেঁয়াজও যথাযথভাবে পৌঁছেনি খাতুনগঞ্জের বাজারে।
অথচ মঙ্গলবার ঢাকায় বৈঠক করে বাণিজ্য সচিব ড. মো. জাফর উদ্দিন এবং বাংলাদেশ ট্যারিফ কমিশনের সদস্য আবু রায়হান আল বিরুনি ঘোষণা দেন, আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে পেঁয়াজের দাম কমবে। পেঁয়াজ আমদানির ক্ষেত্রে এলসি মার্জিন এবং সুদের হার হ্রাসের প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করতে বাংলাদেশ ব্যাংকে পত্র পাঠানো হয়েছে। কিন্তু এ ঘোষণার পর উল্টো বাড়ছে পেঁয়াজের দাম। সম্পাদনা : মাজহারুল ইসলাম

এএস/এমআই

সর্বাধিক পঠিত