প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ওয়েস্ট ইন্ডিজে দূতাবাস কর্মকর্তাকে অপমান করার অভিযোগে দেশে ফিরিয়ে আনা হচ্ছে ভারতীয় দলের ম্যানেজারকে

এল আর বাদল : ম্যানেজার নিজেই যখন পরিস্থিতি ম্যানেজ করতে ব্যর্থ হন! ওয়েস্ট ইন্ডিজে বিতর্কের মুখে ভারতীয় দলের ম্যানেজার সুনীল সুব্রহ্মণ্যম। ভারতীয় দল বিদেশ সফরে থাকলে যার উপর সমস্ত দায়িত্ব থাকে এবার তিনিই বিতর্কের কেন্দ্রে। এর আগে কখনও এমন পরিস্থিতির মুখে পড়তে হয়নি সুনীলকে। তবে এবার ব্যাপারটা বেশ গুরুতর। আর যার জন্য তাকে আজই দেশে ফেরানো হতে পারে বলেও জানা গেছে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজে ভারতীয় দূতাবাসের একজন উচ্চ পদস্থ কর্তাকে অপমান করার গুরুতর অভিযোগ উঠেছে সুনীলের বিরুদ্ধে। প্রধানমন্ত্রীর অফিস পর্যন্ত ব্যাপারটা গড়িয়েছে। আর সরকারের পক্ষ থেকে ভারতীয় বোর্ডে সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত কমিটি অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেটর্স-এর প্রধান বিনোদ রাইয়ের সঙ্গেও যোগাযোগ করা হয়েছিলো বলে জানা গেছে। ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ের জন্য সুনীলকে আজ সন্ধ্যা অবদি দেশে ফেরানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে।

জানা গেছে, ঘটনার সুত্রপাত একটি বিজ্ঞাপনকে কেন্দ্র করে। ভারত সরকারের উদ্যোগে ওয়েস্ট ইন্ডিজে জল সংরক্ষণ নিয়ে একটি বিশেষ বিজ্ঞাপনের শুটিং করার কথা ছিল বিরাট কোহালি-সহ কয়েকজন ভারতীয় ক্রিকেটারের। সেই জন্য শুটিংয়ের সময় ও অন্য তথ্য জানতে ভারতীয় দূতাবাসের পক্ষ থেকে ম্যানেজার সুনীলের সঙ্গে বারবার যোগাযোগ করা হচ্ছিলো। অভিযোগ , ত্রিনিদাদ ও টোব্যাগোর ভারতীয় দূতাবাস থেকে এক উচ্চপদস্থ কর্তা সুনীলের সঙ্গে যোগাযোগ করলে ম্যানেজার ঔদ্ধত্য দেখিয়ে সেই শীর্ষ কর্তার সঙ্গে কথা বলেন। এর পরেই সাংঘাতিক আকার ধারন করে সেই ঘটনা। দূতাবাসের পক্ষ থেকে এর পরই সুনীলের নামে অভিযোগ জানানো হয় প্রধানমন্ত্রীর দফতরে।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে, সুনীল না থাকলে ম্যানেজার কে হবেন? সেক্ষেত্রে অন্য কাউকে ম্যানেজার হিসাবে পাঠানো হতে পারে। অথবা ম্যানেজার ছাড়াই আপাতত কাজ চালাতে হতে পারে কোহলিদের।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত