প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কৃষি মন্ত্রী এবং খাদ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি রিজভীর

শিমুল মাহমুদ : সরকারি নীতির কারণে ক্ষুধা, হাহাকার, অনাহার ও অর্ধাহারে মানুষের জীবন বিপন্ন, অভাবে জর্জরিত হয়ে এক সপ্তাহে ৯ জনের অপমৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। কৃষককে ধ্বংস করতে কৃষিক্ষেত্রে সৃষ্টি হয়েছে অরাজকতা। দেশের এমন পরিস্থিতির কথা উল্লেখ করে কৃষি মন্ত্রী এবং খাদ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি জানিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, কোন সভ্য সরকার হলে ইতিমধ্যে কৃষি মন্ত্রী পদত্যাগ করতেন। সরকারকে বলবো, জোর জবরদস্তি করে ক্ষমতায় থেকে দেশের জনগণের প্রতি জুলুম করবেন না। অবিলম্বে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিন। জনগণকে বাঁচতে দিন। মঙ্গলবার নয়াপল্টন দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ দাবি জানান।

রিজভী বলেন, দেশের যখন এ অবস্থা তখন সরকারি দলের নেতা-কর্মীসহ অন্তত ৬ লাখ লোক বিদেশে যাচ্ছে ঈদ করতে। যেখানে আগে ঈদ করতে মানুষ যেতো গ্রামের বাড়িতে। দেশে সম্পদ বণ্টনের এই অসাম্য এবং দুর্নীতি করার অবারিত ব্যবস্থার জন্য দেশে এক লুটেরা গোষ্ঠীর জন্ম হয়েছে।

তিনি বলেন, গণবিরোধী সরকারের সম্পূর্ণ ব্যর্থতায় এক ভয়াবহ অবস্থা চলছে দেশে। ধানের ন্যায্য মূল্য নিয়ে সরকার উদাসীন, এ বিষয়ে কোন অগ্রগতি নেই, বরং তা বৃত্তপথে ঘোরপাক খাচ্ছে। প্রতিদিনই কৃষকের মনে অন্ধকার ঘন থেকে ঘনতর হচ্ছে।

বিএনপির এ মুখপাত্র বলেন, আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিমসহ সরকারের একাধিক মন্ত্রী- নেতার কথাবার্তায় মনে হয় তারা নিজেদের পদ খুইয়ে হতাশায় ভুগছেন। শুধুই বিএনপি- কে উপদেশ দিচ্ছেন। আমার মনে হয় তারা মন্ত্রীত্ব হারিয়ে বিএনপি’র কনসালটেন্ট হতে চাচ্ছেন। মন্ত্রিত্ব হারিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে তুষ্ট করার জন্য কথাবার্তায় অনেকেই খেই হারিয়ে ফেলেছেন। বিএনপি’র কি নিয়ে আন্দোলন করা উচিত সেই উপদেশও দিচ্ছেন। আপনার নেত্রীকে বলুন যেহেতু অনেক দিন অবৈধভাবে ক্ষমতায় থাকার কারনে আওয়ামী লীগে ভেজাল ঢুকে গেছে তাই ক্ষমতা ছেড়ে দিয়ে দল শুদ্ধ করুন। জনগণকে স্বৈরশাসনের ভারী পাথর থেকে দয়া করে পরিত্রান দিন।

ভোট ডাকাতির অন্যতম কারিগর নির্বাচন কমিশনের সচিব হেলাল উদ্দিন আহমেদকে রোববার পুরস্কৃত করেছে মিডনাইট সরকার। তাকে পদায়ন করে স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব হিসেবে বদলি করা হয়েছে। আর নির্বাচন কমিশনের সচিব করা হয়েছে কারিগরি শিক্ষা বিভাগের সচিব মোঃ আলমগীর হোসেনকে। যিনি ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের অনুগত ও বিশ্বস্ত হিসেবে ইতিমধ্যে পরিচিতি অর্জন করেছেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত