প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

adv 468x65

বিশ্বকাপ ক্রিকেট-২০১৯, বাকি আর ৪ দিন
ব্রিটেনে ১০ শহরের ১১টি মাঠ ক্রিকেট উৎসবে মেতে উঠেছে

আক্তারুজ্জামান : আর যেন তর সইছে না ব্রিটিশদের। ক্রিকেট উৎসবের রঙ গায়ে মাখিয়ে রাস্তায় রাস্তায় ঘোরার জন্য তারা প্রস্তুত। তাদের প্রস্তুতিটা দেখা গেলো বাংলাদেশ দলের প্র্যাকটিসের আশেপাশেই। দৌড়ে এসে হাতে-পায়ে-গায়ে-পিঠে যে যেখানে পেরেছে সেখানে অটোগ্রাফ নিয়েছে। নিবেই বা না কেন? বিশ্বকাপের সবচেয়ে বড় আসর ঘরের মাঠেই যে শুরু হলো বলে। ব্রিটেনের ১০টি শহরের ১১টি মাঠ ইতিমধ্যে ক্রিকেটের রঙে সেজেছে। সাজবে তো অবশ্যই। ক্রিকেট মহাযজ্ঞ মাঠে গড়াতে আর বাকি যে মাত্র ৪দিন।

ক্রিকেট বিশ্বকাপের ১২তম আসরের খেলাগুলো অনুষ্ঠিত হবে বার্মিংহাম, ব্রিস্টল, কার্ডিফ, লিডস, চেস্টার লে স্ট্রিট, লন্ডন, ম্যানচেস্টার, নটিংহ্যাম, সাউদাম্পটন ও টাউন্টনে। এই ১০টি শহরের ১১টি মাঠে ক্রিকেট লড়াই চলবে ৩০ মে থেকে ১৪ জুলাই পর্যন্ত।

বার্মিংহামের এজবাস্টন, ব্রিস্টলের কাউন্টি গ্রাউন্ড, কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেন, চেস্টার লে স্ট্রিটের রিভারসাইড গ্রাউন্ডে, লিডসের হেডিংলি, ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ড, নটিংহ্যামের ট্রেন্টব্রিজ, সাউদাম্পটনের রোজ বোল, টাউন্টনের কাউন্টি গ্রাউন্ড এবং লন্ডনের দুটি মাঠ লর্ডস ও দ্য ওভালে গড়াবে বিশ্বকাপের ৪৮টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।

এরই মধ্যে বিশ্বকাপের গা গরম ম্যাচগুলো মাঠে গড়াতে শুরু করেছে। যেখানে প্রথম দিনই চমক দেখিয়েছে পুচকে দল আফগানিস্তান। পাকিস্তানকে হারিয়ে তারা নিজেদের প্রস্তুতির জানান দিয়েছে। এখন ৪ দিন বাদে যখন মূল পর্ব শুরু হবে তখনই বদলে যেতে পারে ম্যাচের দৃশ্যপট ও মাঠের চিত্র।

ইংল্যান্ডের পাশাপাশি ওয়ালসের একটি মাঠেও গড়াবে বিশ্বকাপের খেলা। গ্যারেথ বেলের দেশটিতে কার্ডিফ শহরের সোফিয়া গার্ডেনে ক্রিকেট বিশ্বকাপের ম্যাচ গড়াবে। যে মাঠে সুখস্মৃতি আছে বাংলাদেশ দলেরও। ২০০৫ সালে ত্রিদেশীয় সিরিজে অস্ট্রেলিয়াকে প্রথমবারের মতো হারিয়েছিল বাংলাদেশ দল। সেই ম্যাচে আশরাফুল ও আফতাব আহমেদের অসাধারণ ব্যাটিং দেখেছিল ক্রিকেটবিশ্ব।

বার্মিংহামের এজবাস্টনে বিশ্বকাপের একটি সেমিফাইনালসহ মোট ৫টি ম্যাচ মাঠে গড়াবে। বাংলাদেশ এখানে একটি ম্যাচ খেলবে তাও ভারতের বিরুদ্ধে। পাশাপাশি ভারত-ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড-পাকিস্তান ও নিউজিল্যান্ড-দক্ষিণ আফ্রিকার ম্যাচ হবে।

ব্রিস্টলের কাউন্টি গ্রাউন্ডে বাংলাদেশের একটিসহ মোট ৩টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা, পাকিস্তান-শ্রীলঙ্ক এবং অস্ট্রেলিয়া আফগানিস্তানের ম্যাচ গড়াবে এই মাঠে।

কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেনে বাংলাদেশ খেলবে স্বাগতিক ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে। এছাড়া আরও ৩টি ম্যাচ হবে এই মাঠে। নিউজিল্যান্ড-শ্রীলঙ্কা, আফগানিস্তান-শ্রীলঙ্কা ও আফগানিস্তান-দক্ষিণ আফ্রিকা।

লন্ডনের লর্ডস ও ওভালে ৫টি করে মোট ১০টি ম্যাচ মাঠে গড়াবে। যেখানে লর্ডসের মাঠে বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে আরও ৪টি ম্যাচ খেলবে পাকিস্তান-দ.আফ্রিকা, ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া, অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড এবং বাংলাদেশ খেলবে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচ পাকিস্তানের বিরুদ্ধে।

আরেক শহর দ্য ওভালের মাঠে এখনো ওয়ানডে খেলতে নামেনি বাংলাদেশ দল। এবারের বিশ্বকাপ দিয়ে সেটার অপূর্ণতা ঘোচাবে টাইগাররা। এই বিশ্বকাপে বাংলাদেশ প্রথম দুটি ম্যাচ দক্ষিণ আফ্রিকা ও নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে খেলবে। এছাড়া উদ্বোধনী ম্যাচে ইংল্যান্ড-দ.আফ্রিকা, অস্ট্রেলিয়া-ভারত ও অস্ট্রেলিয়া-শ্রীলঙ্কার ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।
বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালের ম্যাচটি গড়াবে ফুটবল নগরী ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে। যেখানে সেমিফাইনাল ছাড়াও গ্রুপ পর্বের ৫টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। এবারের আসরে সর্বোচ্চ ৬টি ম্যাচ গড়াবে এই মাঠে। বাংলাদেশ এই মাঠে কোন ম্যাচ খেলবে না। এই মাঠে বিশ্বকাপের সবচেয়ে জমজমাট লড়াই ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। তাছাড়া অস্ট্রেলিয়াও দুটি ম্যাচ খেলবে এই মাঠে।

মাঠ যেমনই হোক ম্যাচের জয়-পরাজয়ই তৈরি করবে হাসি-কান্নার উপলক্ষ। ১০ শহর কিংবা ১১টি মাঠ নয় দরকার শুধু জয়। আর বাংলাদেশ দলের জন্য সবসময়ই পয়া ভেন্যু হিসেবে কাজ করে ব্রিটেনের মাঠ। তাই এবারের আসরে টাইগারদের নিকট প্রত্যাশাটা একটু বেশিই।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত