প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মিম বিতর্কে দেশজোড়া নিন্দায় ক্ষমা চাইলেন বিবেক, মুছলেন টুইট

মুসফিরাহ হাবীব: ঐশ্বর্য রাই বচ্চনকে নিয়ে মিম বিতর্কে দেশজুড়ে নিন্দার মুখে পড়ে অবশেষে বাধ্য হয়ে ক্ষমা চাইলেন বলিউড অভিনেতা বিবেক ওবেরয়। বিতর্কিত মিম টুইটটি ডিলিটও করলেন তিনি।ভারতে লোকসভা নির্বাচনের ফলের সঙ্গে সাবেক বিশ্বসুন্দরী ঐশ্বর্য রাই বচ্চনের অতীত ও বর্তমান সম্পর্কের তুলনা টেনে সোমবার ওই নোংরা মিম টুইট করেছিলেন বিবেক। এর জন্য তিনি কড়া সমালোচনার মুখে পড়েন। তাকে নোটিশও পাঠায় মহিলা কমিশন।

‘রাজনীতি নয়, সামান্য শিল্পের উদাহরণ’- ক্যাপশনে একথা লিখে খুব সাধারণভাবেই বিবেক শেয়ার করেছিলেন পোস্টটি। লোকসভা নির্বাচনের ওপিনিয়ন পোল, এক্সিট পোল ও ফলপ্রকাশ লিখে তৈরি করা ছবি নিজের ট্যুইটার হ্যান্ডেলে পোস্ট করেন তিনি।

সেই পোস্টে তিনটি ছবি ক্রপ করে কোলাজ করা হয়। যেখানে প্রথম ছবিটি হল সালমান খান ও ঐশ্বর্যের। ওই ছবিটি যে সময়ের সে সময় তাদের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল। ছবিটির ওপরে লেখা ওপিনিয়ন পোল। মাঝের ছবিটি হল ঐশ্বর্যের সঙ্গে বিবেকের। সে সময় তারা সম্পর্কে ছিলেন। এ ছবিটির ওপরে লেখা এক্সিট পোল। আর   শেষ ছবিটিতে রয়েছেন অভিষেক বচ্চন ও ঐশ্বর্যের সঙ্গে তাদের মেয়ে আরাধ্যা। সে ছবিটির ওপর লেখা ‘রেজাল্ট’ অর্থাৎ ফলপ্রকাশ।

এ ছবি শেয়ার করার পর থেকেই ক্ষোভে ফেটে পড়ে বিনোদন জগত থেকে নেটদুনিয়া। অভিনেতার এ কুরুচিকর মিমের জন্য তার পদ্মশ্রী সম্মানও কেড়ে নেওয়ার দাবি ওঠে। তবে চরম কটাক্ষের মুখে পড়ার পরও বিবেক অবশ্য নিজের অবস্থানে অনড় থেকে বলেছিলেন, তিনি কোনও ভুল করেননি। তার সহযোগীরা দাবি করেন, বিবেকের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যাক হওয়াতেই এ ঘটনা ঘটে।

তবে নিজের পক্ষে সাফাই দিলেও পরে বিতর্কিত টুইটটি ডিলিট করে বিবেক সবার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। টুইটে তিনি লিখেছেন, “আমার মিম রিপ্লাইয়ে যদি একজন নারীও ক্ষুন্ন হন, তাহলে ক্ষমা চাইছি। টুইট ডিলিট করে দিয়েছি।”

 

 

 

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ