প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রাজধানীর আসাদ গেইটে গ্যাস লাইন বিস্ফোরণ, আহত ১

স্বপ্না চক্রবর্তী : রাজধানীর আসাদ গেইটের আড়ং মোড়ে গ্যাস লাইন বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। বুধবার এ বিস্ফোরণে রাস্তার দুটি গাড়িতে আগুন ধরে একজন রিকশাচালক আহত হয়েছেন। গ্যাস লিকেজের কারণে বিস্ফোরণের ওই ঘটনার পর আসাদ গেইট সংলগ্ন আশেপাশের এলাকায় গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে দেওয়া হয়। তিতাস কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, মেরামতের কারণে রাত দশটা পর্যন্ত মোহম্মদপুর, ধানমন্ডি, মিরপুরের একাংশে গ্যাস সরবরাহ বিঘ্নিত হতে পারে।

তবে জ্বালানি বিভাগের একজন কর্মকর্তা জানান, যেখানে বিস্ফোরনের ঘটনা ঘটেছে সেখানে সংস্কার কাজের জন্য এসএসএফ এর অনুমতি প্রয়োজন হয়। এজন্য সংস্কার কাজ শুরু করতে একটু দেরি হচ্ছে। তবে রাত দশটার আগেই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে বলেও জানান তিনি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাজধানীর আসাদ গেটের আড়ং মোড়ে সড়কের মাঝ বরাবর গ্যাস লাইন বিস্ফোরিত হওয়ায় ওই সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। বেলা সাড়ে তিনটার দিকে হঠাৎ গ্যাস লাইন বিস্ফোরিত হয়ে গ্যাস বের হতে দেখেন পথচারিরা। এ সময় ওই স্থান দিয়ে যাওয়া দুটি গাড়িতে আগুন ধরে যায়। একটি কাভার্ড ভ্যান এবং একটি সাত নম্বর বাসে আগুন ধরে। এতে একজন দগ্ধ হন। তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। ঘটনার পরপরই ট্রাফিক পুলিশ দুই দিক থেকে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেয়। এতে ওই এলাকায় তীব্র যানজট দেখা দেয়। তিতাস জানায়, গ্যাস লাইন লিকেজ থেকে বিস্ফোরনের ঘটনা ঘটেছে। মেরামতের জন্য মোহাম্মদপুর, ধানমন্ডি, মিরপুরসহ বিভিন্ন এলাকায় গ্যাস সরবরাহ বিঘ্নিত হচ্ছে।

এ বিষয়ে তিতাসের পরিচালক (অপারেশন) মো. কামরুজ্জামান বলেন, গ্যাস লিকেজ হয়েছিল। এখন মেরামতের কাজ শুরু করা হবে। আমাদের প্রকৌশলীরা ঘটনাস্থলে আছেন। লিকেজ সারাতে কিছু পাইপলাইন গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করা হয়েছে। এই সময় আশেপাশের এলাকাগুলোতে কিছুটা গ্যাস সরবরাহ বিঘ্নিত হচ্ছে। তবে রাত ১০টার পরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে পারে।

আমাদের ঢাকা মেডিকেল প্রতিনিধি মোস্তাফিজুর রহমান জানান, এ ঘটনায় মো. শহিদ (৩৬) নামের একজন রিকসা চালক অগ্নিদগ্ধ হয়েছেন। তার পিতার নাম ফজল মিয়া। রিকশা চালক জানান, ধানমন্ডি আসাদ গেইট আড়ং এর পাশে গ্যাস লাইনে মেরামতের সময় আগুন লেগে যায়। সেই আগুন গাবতলী ৭ নম্বর বাসেও লেগে যায়। এতে তিনি সামান্য দগ্ধ হয়েছেন। তিনি ঢামেক হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে চিকিৎসাধীন আছেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত