প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

একটি সাম্যভিত্তিক সমাজ চাই : এম এ হাসান

ফাহিম বিজয় : মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা গবেষক এম এ হাসান বলেছেন, স্বাধীনতার ৪৭ বছরে আমাদের প্রাপ্তিগুলো তো আসলে অনেক। কিন্তু আমাদের অপ্রাপ্তিও রয়ে গেছে অনেক। যে প্রত্যাশা নিয়ে বাংলাদেশের ছেলেরা যুদ্ধ করেছিলো, কৃষকের ছেলেরা যুদ্ধ করেছিলো এবং ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে যারা যুদ্ধ করেছিলো তারা চেয়েছিলো একটি বৈষম্যহীন সমাজ। সাম্যভিত্তিক একটি সমাজ। সেটি কিন্তু এখনো প্রতিষ্ঠিত হয়নি। আমরা বৈষম্যহীন সমাজ এখনো গড়তে পারিনি। একটি বৈষম্যহীন সমাজ গড়ার লক্ষ্যে সকলের এগিয়ে আসা জরুরি। আমাদের অর্থনৈতিক উন্নতি হয়েছে, শিক্ষার উন্নতি হয়েছে এবং সার্বিকভাবে দেশ এখন আগের চেয়ে অনেক উন্নত।

এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, উন্নয়নের সূচক শুধু অর্থনীতির সংজ্ঞায় না এনে উন্নয়নটি হওয়া উচিত শান্তি এবং সুন্দর জীবন-যাপনের উপর ভিত্তি করে। আমা যা পেয়েছি তাতো দৃশ্যমান। আমরা অনেক কিছু পেয়েছি, অনেক কিছু হয়েছে। ক্ষুদ্র দেশ হয়েও অর্থনীতির দিক থেকে আমরা প্রায় সাবলম্বি। নানামুখি উন্নয়ন হয়েছে শিক্ষা ব্যবস্থায়। শিক্ষায় এতো উন্নয়ন হওয়ার পরেও জ্ঞানের পরিধি কিন্তু আমাদের বাড়েনি। আমরা প্রকৃত জ্ঞানের চর্চা করতে পারিনি।

তিনি আরো বলেন, আমরা আমাদের রাজনৈতিক সংস্কৃতিকে বদলাতে পারিনি। রাজনীতির ধারাটি পরিবর্তন হওয়া দরকার। শুধু নির্বাচন দিলাম আর গণতন্ত্র হয়ে গেলো? গণতন্ত্র মানে হলো, সাম্যভিত্তিক একটি শাসন। সঠিক শাসন এটি হলো গণতন্ত্র। হানাহানিমুক্ত রাজনীতি হওয়া দরকার। সাম্যের কথা যদি আমরা চিন্তা করি, তাহলে আমাদের প্রকৃত গণতন্ত্র চর্চা করা জরুরি।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত