প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পর্ন সিগারেটের মতই ক্ষতিকর!

আসিফুজ্জামান পৃথিল : সিগারেট যেরকমভাবে স্বাস্থ্যের ক্ষতি করে, ঠিক একই রকমভাবে পর্নও স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। এমন দাবি করেছেন ব্রিটিশ এমপিরা। সোমবার রাতে কমনস উইমেনস এবং সমতা কমিটির সদস্যরা অন্যান্য বড় স্বাস্থ্য সমস্যার জন্য পর্নাসক্তদের জন্যও সরকারি অর্থ বরাদ্দের দাবি জানিয়েছেন। সকল পাবলিক প্লেসকে নারীদের জন্য নিরাপদ করতে তারা বাসে বসে মোবাইল ফোনে পর্ন দেখা নিষিদ্ধেরও সুপারিশ করেন।
এই দুই আইনপ্রনেতা গ্রুপ পর্নোগ্রাফির ক্ষতিকারক দিক বিষয়ে একটি সুপারিশমালা প্রস্তুত করেছেন। একই সঙ্গে তারা ফেসবুক ও টুইটারের মতো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সমালোচনা করেছেন। তারা বলেছেন, ‘অনলাইন স্থানগুলো উন্মুক্ত স্থান, যেখানে নারীরা অহরহ হেনস্থার শিকার হচ্ছে।’ এ আইনপ্রনেতারা বৈশ্বিক ইন্টারনেট জায়ান্টদের এ বিষয়ে পদক্ষেপ নেওয়াতে উদ্যোগ নিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। একটি প্রতিবেদনের ভিত্তিতে এ দাবি জানানো হয়েছে। রিপোর্টটিতে বলা হয়েছে, যুক্তরাজ্যের নারীরা সর্বদাই যৌন হেনস্থার বিষয়ে আতঙ্কে থাকে। প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে ১০ অতিক্রম করলেই মেয়রা যৌন হেনস্থার শিকার হয়। এদর অনেকেই এ ধরণের ঘটনার শিকার স্কুলের পোষাক পরিহিত অবস্থায় হয়।
রিপোর্টটিতে বলা হয়েছে ৫ জনের ২ জন নারীকেই নোংড়া ছবি পাঠানো হয়। এর ভিত্তিতে এই এমপিরা দেশজুরে পর্নবিরোধি প্রচারণা চালানোর পরামর্শ দিয়েছেন। এমপিরা একটি বিখ্যাত মামলার কথা উল্লেখ করেছেন। ২০১৫ বছর বয়সে নাথান ম্যাথুস নামে এক যুবক তার ১৬ বছর বংসি সৎ বোনকে বিভৎসভাবে খুন করে টুকরো টুকরো করেন। পরে জানা যায় সে সংঘাতময় পর্নে আসক্ত ছিলো। পুলিশ ম্যাথুসের কাছে ১৭ মিনিটের একটি পর্ন পায়। যেখানে এক নারীর সাথে যৌন মিলনের পূর্বে তাকে বেধরক মারধক করা হয়। প্রায় একই রকমভাবে সৎ বোনের ওপর নির্যাতন চালিয়েছিলো ম্যাথুস। ডেইলি মেইল

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত