প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পাশ্চাত্যের ওপর আস্থা রেখে লাভ হয়নি: ইরানের সর্বোচ্চ নেতা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী বলেছেন, পরমাণু আলোচনা ও পরমাণু সমঝোতায় পাশ্চাত্যের ওপর আস্থা রেখে তার দেশের কোনো লাভ হয়নি। তিনি বলেছেন, “আমরা পরমাণু সমঝোতার ক্ষেত্রে পাশ্চাত্যের ওপর আস্থা রাখার ফল প্রত্যক্ষ করেছি। আস্থা রেখেছি কিন্তু কোনো লাভ হয়নি।”

তিনি রোববার তেহরানে ইরানের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় তাবরিজ শহরের হাজার হাজার মানুষের এক সমাবেশে একথা বলেন।

সর্বোচ্চ নেতা পরমাণু সমঝোতার ক্ষেত্রে আমেরিকার নোংরা আচরণ এবং ইউরোপীয়দের দ্বিমুখী চরিত্রের ব্যাপারে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফের কূটনৈতিক তৎপরতার ভুয়সী প্রশংসা করে বলেন, এই প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখতে হবে। পার্সটুডের খবর।

আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী বলেন, পাশ্চাত্যের কাছ থেকে ছাড় আদায় করতে হবে কিন্তু তার ওপর আস্থা রাখা বা নির্ভরশীল হওয়া যাবে না। কারণ, সেক্ষেত্রে তারা ইরানের ওপর নানা দিক দিয়ে চেপে বসবে। রাষ্ট্রের দায়িত্বশীলদের এ ব্যাপারে সার্বক্ষণিক সজাগ দৃষ্টি রাখার আহ্বান জানান তিনি।

যেসব শক্তির কাছে বিশ্ব মানবতাকে ধ্বংস করে দেয়ার মতো অস্ত্র থাকা সত্ত্বেও ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র সক্ষমতার বিরোধিতা করে তাদের তীব্র নিন্দা জানিয়ে সর্বোচ্চ নেতা বলেন, ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র নিয়ে কথা বলার কোনো অধিকার তাদের নেই। তারা চায় ইরানের কাছে আত্মরক্ষার মতো সমরাস্ত্র না থাকুক যাতে তারা তেহরানের বিরুদ্ধে বলপ্রয়োগ করতে পারে।

আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী বলেন, পরমাণু অস্ত্রসহ সব ধরনের মারণাস্ত্রকে আমরা হারাম বা নিষিদ্ধ মনে করি। কিন্তু এর বাইরের যেকোনো প্রচলিত অস্ত্র যত বেশি প্রয়োজন আমরা তৈরি ও নিজেদের শক্তিশালী করব।

তিনি ইসলামি বিপ্লবের ৩৯তম বিজয়বার্ষিকীর শোভাযাত্রায় জনগণের স্বতস্ফুর্ত অংশগ্রহণকে অলৌকিক ঘটনা বলে উল্লেখ করেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত