শিরোনাম
◈ ব্রিকসকে দেওয়ার মতো অনেক কিছু রয়েছে বাংলাদেশের: ডা. দীপু মনি ◈ পল্টনে ফাইন্যান্স টাওয়ারের আগুন নিয়ন্ত্রণে ◈ ঢাকায় ৮ মাত্রার ভূমিকম্পের শঙ্কা রয়েছে: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ◈ এমপি আনার হত্যা তদন্তে কোনো চাপ নেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ তারেক রহমানসহ পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে: সংসদে প্রধানমন্ত্রী ◈ সাধারণ নাগরিকের মতো করেই ড. ইউনূসের বিচার হচ্ছে: আইনমন্ত্রী ◈ শিগগিরই আমাদের আন্দোলন আরও বেগবান হবে: মির্জা ফখরুল ◈ ড. ইউনূসের কথা অসত্য, জনগণের জন্য অপমানজনক: আইনমন্ত্রী ◈ সরকারের ব্যাংকঋণে বেসরকারিখাতে বিনিয়োগ ব্যাহত হবে: সিপিডি ◈ বাবার হত্যার সঠিক বিচার চেয়েছেন নিহত আজিম আনারের কন্যা 

প্রকাশিত : ২০ মে, ২০২৪, ০১:১৩ দুপুর
আপডেট : ২০ মে, ২০২৪, ০১:১৩ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

যাত্রাবাড়ীতে ছাদ থেকে পড়ে কিশোরীর মৃত্যু

মোস্তাফিজুর রহমান: [২] যাত্রাবাড়ীতে ৪তলার বাসার ছাদ থেকে নিচে পড়ে খাজিদা আক্তার রাত্রী (১৭) এক কিশোরীর মৃত্যু। সে মানসিক প্রতিবন্ধী ছিলো।

[৩] সোমবার (২০ মে) সকাল সড়ে ৭টার দিকে দক্ষিণ যাত্রাবাড়ী শহিদ ফারুক সড়ক রোডে ৪তলা বাড়ির ভাড়া বাসায় ঘটনাটি ঘটে। 

[৪] নিহত খাজিদাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে জরুরি বিভাগে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 

[৫] মৃতার সৎ মা জায়েদা আক্তার বলেন,  খাদিজা ছোট সময় থেকেই শারীরিক প্রতিবন্ধী ছিল। সকালে বাসার সবাই ঘুমিয়ে ছিলাম, সকালে প্রায় দিনই খাদিজা ছাদে উঠে হাঁটা হাটি করত তার ছোট বোন আমেনা আক্তার কনা (৯)। কিন্তু আজ সকালে খাদিজার ছোট বোন আমার মেয়ে কণা ঘুমিয়ে ছিল। পরে কণা ঘুম থেকে উঠে সেও ছাদে গিয়ে হাটাহাটি করার সময় তার বোন খাদিজাকে দেখতে না পেয়ে তার মা বাবাকে বলছে খাদিজা আপুকে ছাদে খুঁজে পাচ্ছি না, সে তো ছাদে নেই। পরে তার বাবা ছাদে গিয়ে উপর থেকে দেখতে পায় নিচে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছে খাদিজা। সেখান থেকে উদ্ধার করে তাকে সকালে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

[৬] জায়েদা আরো বলেন, ছাদের চারপাশের রেলিং অনেক উঁচু ছিল। তবে খাদিজার নিচে কিভাবে পড়ে গেছে আমরা কেউই দেখতে পাইনি। 

[৭] ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের পুলিশ পরিদর্শক মোঃ বাচ্চু মিয়া বলেন, মরদেহটি হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানায় অবগত করা হয়েছে।

[৭] মৃতা খাদিজা মুন্সিগঞ্জ বিক্রমপুরের ঘড়ির, চশমা ব্যবসায়ী মো. কাওসার আহমেদের মেয়ে। দুই বোনের মধ্যে সে ছিল বড়। বর্তমানে দক্ষিণ যাত্রাবাড়ীতে পরিবারের সঙ্গে বসবাস করতো।

এমআর/এইচএ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়