শিরোনাম
◈ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না অভিযোগ ফখরুলের ◈ রিজভী-এ্যানিসহ বিএনপির শতাধিক নেতাকর্মী আটক ◈ মানুষের ভাগ্য বদলের জন্য আমরা লড়াই করে যাচ্ছি : প্রধানমন্ত্রী ◈ মিরাজের দুর্দান্ত শতকে টাইগারদের সংগ্রহ ২৭২  লড়াকু পুঁজি ◈ বাকপ্রতিবন্দীকে ধর্ষণের অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতা গ্রেপ্তার ◈ নয়াপল্টনে পুলিশের সঙ্গে বিএনপির নেতা-কর্মীদের সংঘর্ষ, নিহত১ ◈ ঢাকার রেলস্টেশনে চেকপোস্ট, চলছে পুলিশের তল্লাশি ◈ বিএনপি পল্টনেই কেন সমাবেশ করতে  চায়, খতিয়ে দেখা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ ১৪ টি দলকে কারণ দর্শানোর নোটিশ ইসির ◈ একে একে ৩ শিশুকে ধর্ষণ, ধর্ষককে পুলিশে দিয়েছে এলাকাবাসী

প্রকাশিত : ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ০৬:৫৩ বিকাল
আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ০৭:০৩ বিকাল

প্রতিবেদক : শাখাওয়াত মুকুল

৭৫-এর মতই গণতন্ত্রকে হত্যা করতে চায় আওয়ামী লীগ : ড. মোশাররফ

ড. খন্দকার মোশাররফ

শাখাওয়াত মুকুল: বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, যে সরকার শেয়ারবাজার লুট করে বিদেশে টাকা পাচার করেছে তাদের আর ক্ষমতায় থাকার অধিকার নাই। তারা ৭৫ সালে একবার গণতন্ত্রকে হত্যা করেছে এখন আবারও গণতন্ত্রকে হত্যায় লিপ্ত রয়েছে, তাদের হাত থেকে এ দেশকে রক্ষা করতে হবে।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর যাত্রাবাড়ি আইডিয়াল স্কুল এলাকায় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন তিনি।

খন্দকার মোশাররফ বলেন, এদেশে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করাই একমাত্র লক্ষ্য। আজ জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে এই সরকারকে হটাতে হবে। যেভাবে মানুষ জেগে উঠেছে এই সরকারের পতন অনিবার্য। 
তিনি বলেন, এই সরকার মিথ্যা মামলা দিয়ে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে এখনও বন্দি রেখেছে, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে বিদেশে থাকতে বাধ্য করেছে। তার গত ১৪বছরে আমাদের নেতাকর্মীদের মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করেছে, নির্যাতন করেছে।

তিনি আরও বলেন,  আমাদের নেতাকর্মীরা নির্যাতন সহ্য করেও আওয়ামী লীগে যোগদান করেনি।
এতকিছুর পরেও বিএনপিকে দূর্বল করতে পারেননি। আর চেষ্টা করবেন না। জনগণ আপনাদের চিহ্নিত করে রেখেছে। যারা নির্যাতন করেছে তাদের আমরাও চিহ্নিত করে রেখেছি। বেশিদিন সময় নাই। জনগণের সামনে জবাব দিতে হবে। আপনাদের বিচার হবে।

পুলিশের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনাদের বেতন হয় এদেশের মানুষের ট্যাক্সের টাকায়। আপনারা গণতন্ত্রের কর্মচারি। আপনার আওয়ামী লীগকে সমর্থন বন্ধ করুন। আমাদের নেতাকর্মীদের ওপর আর হামলা করবেন না।

এসময় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ড. মঈন খান বলেন, আমরা দেশের মানুষকে গণতন্ত্র উপহার দেওয়ার জন্য দেশ স্বাধীন করেছি। আওয়ামী লীগ তাদের মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি দাবি করে,  তারা যদি মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি হয়ে থাকে তাহলে কেন গণতন্ত্রকে হত্যা করে একদলীয় শাসন কায়েম করেছে। আজ সময় এসেছে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে একদলীয় সরকারকে বিদায় করতে হবে।

তিনি বলেন, আমরা জনগণের ক্ষমতাকে বিশ্বাস করি। জনগণ তাদের ইচ্ছা অনুযায়ী ভোট দিয়ে তাদের সরকার নির্বাচিত করতে চায়। তাই জনগণের চাওয়া পাওয়াকে মূল্যায়ণ করে জনগণের  পক্ষে আন্দোলন করতে হবে। এদেশে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে হবে।

সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন,  ঢাকা মহামগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আবদুস সালাম, বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আবুল খায়ের ভূঁইয়া, বিএনপি নেতা নবী উল্লাহ নবী প্রমূখ।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়