শিরোনাম
◈ নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে ঠিকাদারের মৃত্যু ◈ মিয়ানমার সীমান্তে আগের পরিস্থিতি আর সৃষ্টি হবে না: প্রত্যাশা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর  ◈ জাতীয় পার্টিতে কোনো বিভেদ নাই: রওশন এরশাদ ◈ সাংবাদিকরা চাষাবাদ করছেন কি না, দেখার দায়িত্ব পেলেন শাইখ সিরাজ ◈ কারামুক্ত বিএনপি নেতা আলালের স্বাস্থ্যের খোঁজ নিলেন মঈন খান ◈ গাজায় যুদ্ধ নয়, গণহত্যা চলছে: প্রধানমন্ত্রী ◈ শুক্রবার বিশ্বে বাতাস দূষণের তালিকায় ঢাকা ছিল সপ্তম ◈ মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে নির্বাচন  নিয়ে কেউ প্রশ্ন করেনি: প্রধানমন্ত্রী ◈ লোহিত সাগরে হামলায় ব্যবহার করা হবে সাবমেরিন অস্ত্র: হুথি নেতা  ◈ ২১ বলে সেঞ্চুরি করে বিশ্ব রেকর্ড গড়লেন আসজাদ

প্রকাশিত : ০৫ ডিসেম্বর, ২০২৩, ০১:৫৯ রাত
আপডেট : ০৫ ডিসেম্বর, ২০২৩, ০১:৫৯ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচনে জয়ী হওয়ার খোয়াব না দেখাই ভালো!

রবিউল আলম

রবিউল আলম: যারা স্বপ্ন দেখছেন, স্বপ্ন দেখাচ্ছেন দলকে বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত হওয়ার জন্য তাদের জাতি ও দল কীভাবে গ্রহণ করবে? আমার জানা নেই। আপনি জানেন কি? নিজেকে অনেকটা অসহায় মনে হয় আওয়ামী লীগ দলটা করি বলেই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা বহিঃর্বিশ্বের কাছে গর্ব করে নিরপেক্ষ প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচন উপহার দেওয়ার ঘোষণা করেছেন। দলের প্রতিটি মনোনীত ও মনোনয়নের জন্য আবেদনকারীদের অংশগ্রহণের জন্য উন্মুক্ত বার্তা দিয়েছেন। যারা পাস করে আসবেন জনগণের ভোটে, তারাই বাংলার জনগণের জনপ্রতিনিধি হবেন। বিশ্ব দেখবে শেখ হাসিনার নিরপেক্ষতা। আমরা যারা এই দলটি করি, মুজিব আদর্শ বুকে ধারণ করেছি, তারা গর্বিত। 

আশা কী হৃদয়ে বন্দী থাকবে? নাকি মনোনীতরা জনগণের কাছে, বহিঃর্বিশ্বের কাছে নিজের যোগ্যতার প্রমাণ দেবেন, প্রতিদ্বন্দ্বিতার মাধ্যমে। মনোনয়নের জন্য আবেদনকারীদের সহায়তা ছাড়া সম্ভব হবে না, এই কথা বিবেচনায় নিতে হবে। নিজেকে জনগণের হিতাকাক্সক্ষী ও মনোনয়ন বঞ্চিতদের কাছে দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিতে হবে। সবাই পাস করবেন না। ভারতের বিজেপি যুগের পর যুগ নির্বাচনের অংশগ্রহণ করেছে। বারবার পরাজিত হওয়ার পরেও নির্বাচন বয়কট করেনি, আজকে বিজেপিকে পরাজিত করা যাচ্ছে না। আওয়ামী লীগ ২৬টা আসন নিয়েও নির্বাচন বয়কট করেনি। আওয়ামী লীগকে পরাজিত করা আজ স্বপ্ন। বিএনপি-জামায়াত কী ভেবে নির্বাচন বয়কট করলো? আমার বোধগম্য নয়। আওয়ামী লীগবিরোধী ভোট ও দলের সংখ্যা বিবেচনায় না নিয়ে। এখন প্রশ্ন হলো নির্বাচন প্রতিহত করবেন? নাকি ভোটার আটকাবেন? এর কোনোটাই করতে না পেরে হয়তো জাতীয় পার্টির উপর নির্ভর হতে পারে। তা-ই যদি হয়, তবে বিএনপির অবস্থান কোথায়? 

বাংলাদেশের রাজনীতিতে? শতবাধা সত্ত্বে বঙ্গবন্ধু ৭০এর নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছিলেন বাংলার স্বাধীনতার জন্য। যারা মনোনয়ন পেয়েছেন, তাদের জন্য সতর্কবার্তা। আওয়ামী লীগের ভেতরে কিশোর গ্যাং ও মাদক কারবারীরা। ইতোমধ্যে ব্যানার-ফেস্টুন ছিড়া শুরু হয়েছে, অফিস দখল, অস্ত্র প্রদর্শন কোনো সুস্থ নির্বাচনের ইঙ্গিত বহন করে না। ক্ষমতাশীলদের দায়িত্ব অনেক। মনোনীতদের দায়িত্ব আরও বেশি, বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়ে সংসদে প্রতিনিধিত্ব করা জনগণ ভালোভাবে নেয় না। আমরা মাঠের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত, কী জবাব দেবো? কী নিয়ে রাজনীতি করবো? মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বহিঃর্বিশ্বের কাছে কী বলবেন? মনোনয়ন যারা পেয়েছেন, বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতার লজ্জা থেকে দেশ জাতি ও দলকে রক্ষা করবেন, মনোনয়ন বঞ্চিতদের সঙ্গে নিয়ে। লেখক: মহাসচিব, বাংলাদেশ মাংস ব্যবসায়ী সমিতি 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়