শিরোনাম
◈ গার্ডার দুর্ঘটনায় দোষীদের শাস্তিমূলক ব্যবস্থায় আপত্তি থাকবে না: চীনা রাষ্ট্রদূত ◈ নারীর পোশাক ‘উস্কানিমূলক’! যৌন নিগ্রহের অভিযুক্তকে জামিন দিয়ে বিতর্কে ভারতের আদালত ◈ পাকিস্তান-আফগানিস্তান অঞ্চলে সেনা মোতায়েন করতে চায় চীন ◈ রোহিঙ্গাদের ফ্ল্যাট দেওয়ার কথা বলেও পিছু হঠলো দিল্লি ◈ একযোগে ১৪৬ কনস্টেবলকে ঢাকায় বদলি ◈ জিয়া জড়িত না থাকলে খুনীরা বঙ্গবন্ধুকে হত্যার সাহস পেত না: কাদের ◈ ইসরাইলের সঙ্গে পূর্ণ কূটনৈতিক সম্পর্কে ফিরে গেল তুরস্ক ◈ ইউক্রেনে আটক পশ্চিমা অস্ত্রের প্রদর্শনী করল রাশিয়া ◈ গার্ডার পড়ার ঘটনার সময় ক্রেনটি চালাচ্ছিলেন চালকের সহকারী রাকিব: র‌্যাব ◈ ডিম ব্যবসায়ী সমিতি কোনভাবেই দাম বাড়াতে পারে না

প্রকাশিত : ২২ জুন, ২০২২, ০২:৪৫ দুপুর
আপডেট : ২৫ জুন, ২০২২, ০৯:২৪ সকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

আবুল হোসেন কি আবারো মন্ত্রী হবেন?

সালেহ্ বিপ্লব: জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিনের প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিশ্বব্যাংকের কী দোষ দেবো? তারা করলো তো আমাদের দেশের লোকজনের কথায় করলো। কারো বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ নেই। এই ঘটনা ঘটায় একদিকে ভালো হলো। আমাদের যে সক্ষমতা আছে, তা প্রমাণ হলো।

শেখ হাসিনা এও বলেন,  জুজুর ভয় দেখাবেন না। বিশ্ব ব্যাংক কিন্তু দাতা না। উন্নয়ন অংশীদার। ভিক্ষা দেয় না, অংশীদার হিসেবে লোন নেই। সুদসহ শোধ করি। টাকা আমাকে দিতে হবে। একটা প্রজেক্টে টাকা বরাদ্দ করা হলে ওই টাকা ফেরত যাওয়ার কোনো উপায় নেই। পদ্মার খাতে টাকাটা দেয়নি, কিন্তু অন্য খাতে সেই টাকাটাই দিয়েছে। আর বিশ্ব ব্যাংককে বুঝতে হবে করুণা নেই না। অংশীদার হিসেবে ঋণ নেই। আগে এই টাকার জন্যে আমাদের যেতে হতো। আমি বলেছি, না। আমরা যাবো কেনো? ঋণ নেবো, আমাদের দেশে এসে দিয়ে যাবেন। এখন তাই হয়।  

এরপর আরেক সাংবাদিক সরকারপ্রধানের কাছে জানতে চান, সব অভিযোগ তো মিথ্যা প্রমাণ হয়েছে। সৈয়দ আবুল হোসেনকে আবারও মন্ত্রিসভায় আনা হবে কি না। জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, সময় বলে দেবে, কী করবো। 

 

  • সর্বশেষ