শিরোনাম

প্রকাশিত : ০১ অক্টোবর, ২০২২, ০৬:৩৭ বিকাল
আপডেট : ০২ অক্টোবর, ২০২২, ০১:২৫ দুপুর

প্রতিবেদক : এম. মোশাররফ হোসাইন

রাশিয়ার বিরুদ্ধে জাতিসংঘে নিন্দা প্রস্তাব বাতিল, ভোট দেয়নি চীন-ভারত

জাতিসংঘ

এম. মোশাররফ হোসাইন : গণভোটের মাধ্যমে ইউক্রেনের চারটি অঞ্চল রাশিয়ার অন্তর্ভুক্তির বিষয়ে একটি খসড়া নিন্দা প্রস্তাব জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে বাতিল হয়েছে। রাশিয়া এ প্রস্তাবে ভেটো দিয়েছে। প্রস্তাবে ভোটদানে বিরত ছিল রশিয়ার ঘনিষ্ঠ মিত্র হিসেবে পরিচিত চীন ও ভারত-সহ চার দেশ। রয়টার্স, আল জাজিরা

রাশিয়ার সাথে অন্তর্ভুক্তিতে ইউক্রেনের পরিবর্তিত অবস্থাকে স্বীকৃতি না দিতে সদস্য দেশগুলোকে আহ্বান এবং ইউক্রেন থেকে রাশিয়াকে সেনা প্রত্যাহারে বাধ্য করার কথা জানিয়ে শুক্রবার নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে খসড়া প্রস্তাবটি যৌথভাবে উত্থাপন করে যুক্তরাষ্ট্র ও আলবেনিয়া।

প্রস্তাবে বলা হয়, রাশিয়ার অস্থায়ী নিয়ন্ত্রণে থাকা ইউক্রেনের অঞ্চল লুহানস্ক, দোনেৎস্ক, খেরসন ও জাপোরিঝিয়ায় গত ২৩ সেপ্টেম্বর থেকে ২৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অনুষ্ঠিত তথাকথিত গণভোট বেআইনি পদক্ষেপ হতে পারে। এর কোনো বৈধতা নেই এবং ইউক্রেনের এই অঞ্চলগুলোর অবস্থার পরিবর্তনের জন্য কোনো ভিত্তি তৈরি করতে পারে না।

তবে রাশিয়া ভেটো দেওয়ায় নিন্দা প্রস্তাবটি গৃহীত হয়নি। আর নিরাপত্তা পরিষদের ১৫ সদস্যের মধ্যে ভোট দেওয়া থেকে বিরত ছিল চীন, ভারত, ব্রাজিল ও গ্যাবন। বাকি ১০ সদস্য প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দিয়েছে।

নিরাপত্তা বৈঠকের পর জাতিসংঘে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত থমাস গ্রিনফিল্ড বলেন, ভোটদানে বিরত থাকা মানে রাশিয়ার পক্ষ নেওয়া নয়। একটি দেশও রাশিয়ার পক্ষে ভোট দেয়নি। ভোটদানে বিরত থাকা মানে রাশিয়ার পক্ষ নয়।

জাতিসংঘে নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত ভ্যাসিলি নেবেনজিয়া প্রস্তাবের বিপক্ষে একমাত্র ভোটটি দেন। এ সময় তিনি যুক্তি দিয়েছিলেন যে অঞ্চলগুলো মস্কো দখল করেছে এবং যেখানে এখনো লড়াই চলছে, তারা রাশিয়ার অংশ হতে ভোট দিয়েছে।

জাতিসংঘে ইউক্রেনের রাষ্ট্রদূত সার্গেই কিসলিতস বলেছেন, প্রস্তাবের বিপক্ষে একটি মাত্র ভোট পড়েছে। এতেই প্রমাণিত হয় রাশিয়া বিচ্ছিন্ন। রাশিয়ার বাস্তবতা অস্বীকার করার মরিয়া প্রচেষ্টার সাক্ষ্য দিয়েছে।

ভোটদানে বিরত থাকার ব্যাখ্যায় জাতিসংঘে ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি রুচিরা কাম্বোজ বলেছেন, ইউক্রেনের সাম্প্রতিক ঘটনাবলীর কারণে ভারত গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। নয়াদিল্লি সবসময় মনে করে, মানুষের জীবনের বিনিময়ে কোনো সমাধান আসতে পারে না।

যুক্তরাজ্যের দূত বারবারা উডওয়ার্ড বলেছেন, রাশিয়া তার অবৈধ কার্যকলাপকে রক্ষা করতে এ ভেটোর অপব্যবহার করেছে। ইউক্রেনের চারটি এলাকা রাশিয়ার অন্তর্ভুক্তির কোনো আইনি বৈধতা নেই।

এর আগে, শুক্রবার ইউক্রেনের অধিকৃত চার অঞ্চলকে রাশিয়ায় অন্তর্ভুক্তির ঘোষণা দেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এসময় ইউক্রেন ও পশ্চিমা দেশগুলোকে হুমকি দিয়ে তিনি বলেন, লুহানস্ক ও দোনেৎস্ক নিয়ে গঠিত ডনবাস অঞ্চল চিরকালের জন্য রাশিয়ার হবে। আর রাশিয়া তার ভূখণ্ডকে যেকোনো মূল্যে রক্ষা করবে।

ইউক্রেনের চার অঞ্চলে গণভোট আয়োজন করার জন্য বিশ্বজুড়ে নিন্দার মুখে পড়ে রাশিয়া। এরপর রাশিয়ার বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয় যুক্তরাষ্ট্র এবং অন্তর্ভুক্তির বিষয়ে কঠোর মনোভাব পোষণ করেন বাইডেন।

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে উত্থাপিত শুক্রবারের খসড়া প্রস্তাবটি বাতিল হওয়ার পর এখন ১৯৩ সদস্যের জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে নেয়া হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

  • সর্বশেষ