শিরোনাম
◈ দেশের কারাগারে আটক ৩৬৩ জন বিদেশি নাগরিক, ভারতীয় ২১২ ◈ দেশের যেসব অঞ্চলে ৬০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ের আশঙ্কা ◈  সরকার থেকে বরাদ্দ করলে সংসদ সদস্যদের গাড়ি আমদানির প্রয়োজন নেই: সংসদে আলোচনা ◈ ঈদে যানজট এড়াতে ডিএমপির ২২ নির্দেশনা ◈ নেপিয়ার ঘাস খেয়ে মারা গেলো খামারের ২৬ গরু ◈ এমপি আনার হত্যা তদন্তে কোনো চাপ নেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ তারেক রহমানসহ পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে: সংসদে প্রধানমন্ত্রী ◈ সাধারণ নাগরিকের মতো করেই ড. ইউনূসের বিচার হচ্ছে: আইনমন্ত্রী ◈ ড. ইউনূসের কথা অসত্য, জনগণের জন্য অপমানজনক: আইনমন্ত্রী ◈ সরকারের ব্যাংকঋণে বেসরকারিখাতে বিনিয়োগ ব্যাহত হবে: সিপিডি

প্রকাশিত : ২২ এপ্রিল, ২০২৪, ১০:৫১ দুপুর
আপডেট : ২২ এপ্রিল, ২০২৪, ০৫:০৬ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

গাজায় ইসরায়েলি গণহত্যা, খান ইউনুসে গণকবর থেকে ২১০ লাশ উদ্ধার

সাজ্জাদুল ইসলাম: [২] ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকার খান ইউনিস শহরের নাসের মেডিকেল কমপ্লেক্সে একটি গণকবর লাশগুলো। ফিলিস্তিনের জরুরি সেবা বিভাগ গণকবরটির খোঁজ পায়। সূত্র আল-জাজিরা

[৩] এ নিয়ে গত কয়েক দিনে গাজায় তৃতীয় গণকবরের সন্ধান পাওয়া গেল। এর আগে ইসরায়েলি বাহিনী সরে যাওয়ার পর গাজার আল-শিফা হাসপাতাল এবং বেইত লাহিয়া এলাকায় দুটি গণকবরের সন্ধান পাওয়া যায়।

[৪] টিআরটি ওয়াল্ড জানায়, গাজার জরুরি সেবা বিভাগ বলেছে, ‘আমাদের দল অবশিষ্ট শহীদদের লাশ খুঁজে পেতে সামনের দিনগুলোতেও অনুসন্ধান ও উদ্ধার অভিযান চালাবে। কেননা, সেখানে (খান ইউনিসে) এখনো উল্লেখযোগ্যসংখ্যক শহীদের লাশ রয়েছে।’

[৫] ৭ এপ্রিল গাজার দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর খান ইউনিস থেকে ইসরায়েল সেনাদের প্রত্যাহার করে নেয়। এরপর এ গণকবরের সন্ধান পাওয়া গেল। কয়েক মাস ধরে ইসরায়েলের বিরামহীন গোলাবর্ষণ ও তাদের সেনাদের সঙ্গে তুমুল লড়াইয়ে শহরটির বড় অংশই ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে।

[৬] এর আগে ইসরায়েলি বাহিনী গাজা নগরীর আল–শিফা হাসপাতাল থেকে দুই সপ্তাহের অবরোধ তুলে নিলে ১৫ এপ্রিল সেখানে একটি গণকবরে ১৫টি লাশ পাওয়া যায়। এগুলো হল ইসরায়েলি বাহিনীর হত্যার শিকার রোগীদের লাশ। চিকিৎসক ও স্বজনেরা লাশগুলো শনাক্ত করেন। হাসপাতালের কর্মীরা বলেন, মার্চে হামলা চালানোর সময় আল-শিফা হাসপাতালের ফটকের খুব কাছে ইসরায়েলি সেনারা এসব ব্যক্তিকে হত্যা করে। ওই অভিযানে হাসপাতালটির বেশির ভাগ অংশই ধ্বংস হয়ে গেছে।

[৭] এ ছাড়া উত্তর গাজার বেইত লাহিয়া এলাকায় একটি গণকবরে ২০টি লাশ পাওয়ায় যায়। আবর্জনা ও বালু দিয়ে লাশগুলো ঢাকা ছিল। বাসিন্দারা জানিয়েছেন, লাশগুলো আল-আসসাফ পরিবারের সদস্যদের।

[৮] ধারণা করা হচ্ছে, চার মাসে আগে ওই এলাকায় ইসরায়েলি বাহিনীর অনুপ্রবেশের সময় এ হত্যাযজ্ঞ ঘটে। ওই এলাকায় স্থাপন করা তল্লাশিচৌকি পার হওয়ার সময় এই পরিবারের সদস্যদের হত্যা করা হয়।

[৯] এদিকে গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় রোববার জানিয়েছে, সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় গাজায় ইসরায়েলি বাহিনীর হামলায় আরও ৪৮ জন নিহত হয়েছেন। এ নিয়ে ৭ অক্টোবর থেকে ইসরায়েলের হামলায় ৩৪ হাজার ৯৭ ফিলিস্তিনি নিহত হলেন।

এসআই/আর/আইএফ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়