শিরোনাম
◈ যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে টস জিতে ফিল্ডিংয়ে ভারত ◈ ব্রিকসকে দেওয়ার মতো অনেক কিছু রয়েছে বাংলাদেশের: ডা. দীপু মনি ◈ পল্টনে ফাইন্যান্স টাওয়ারের আগুন নিয়ন্ত্রণে ◈ ঢাকায় ৮ মাত্রার ভূমিকম্পের শঙ্কা রয়েছে: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ◈ এমপি আনার হত্যা তদন্তে কোনো চাপ নেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ তারেক রহমানসহ পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে: সংসদে প্রধানমন্ত্রী ◈ সাধারণ নাগরিকের মতো করেই ড. ইউনূসের বিচার হচ্ছে: আইনমন্ত্রী ◈ শিগগিরই আমাদের আন্দোলন আরও বেগবান হবে: মির্জা ফখরুল ◈ ড. ইউনূসের কথা অসত্য, জনগণের জন্য অপমানজনক: আইনমন্ত্রী ◈ সরকারের ব্যাংকঋণে বেসরকারিখাতে বিনিয়োগ ব্যাহত হবে: সিপিডি

প্রকাশিত : ১৫ এপ্রিল, ২০২৪, ০১:৪২ দুপুর
আপডেট : ১৫ এপ্রিল, ২০২৪, ০১:৪২ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

ঈদের সাথে যুক্ত হওয়া নববর্ষের উচ্ছ্বাসে বিনোদন স্পট পরিপূর্ণ

মঈন উদ্দিন, রাজশাহী: [২] প্রচণ্ড রোদ ও ভ্যাপসা গরম উপেক্ষা করে ঈদের ছুটিতে রাজশাহী নগরীর বিনোদন স্পটগুলোতে মানুষের ঢল নামে। পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ঈদের দিন বিকাল থেকে সোমবার পহেলা বৈশাখ পর্যন্ত ঈদের সাথে যুক্ত হওয়া বাংলা নববর্ষে আনন্দ ভাগাভাগী করে নিতে পরিবার পরিজন নিয়ে বিনোদন প্রেমীরা ঘুরে দেখেন বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান ও স্থাপনা। 

[৩] ঈদ ও পহেলা বৈশাখ উদযাপনে রাজশাহীর পদ্মাপাড়সহ মহানগরীর বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে বাড়ে দর্শনার্থীদের ভিড়। ঈদের দিন বিকেল থেকেই ঈদেও চতৃর্থ দিন পহেলা বৈশাখ পর্যন্ত বিনোদন প্রেমীরা নগরীর দর্শনীয় স্থানগুলোতে ভিড় করেন। আগামী শুক্র ও শনিবার পর্যন্ত এমন ভিড় থাকবে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

[৪] রাজশাহীর নগরীর প্রধান বিনোদন কেন্দ্র পদ্মার ধার, শহিদ এএইচএম কামারুজ্জামান কেন্দ্রীয় উদ্যান, শহিদ জিয়া পার্কে হাজার হাজার বিনোদন পিয়াসী মানুষের ভীড়। কিন্তু সব কিছুকে ছাপিয়ে গেছে পদ্মানদীপাড়। শহর সংলগ্ন নদী পাড়ে হাজার মানুষের সমাগম। আনন্দ-উচ্ছ্বাসে পরিপূর্ণ বিনোদন কেন্দ্রগুলি। পদ্মায় নৌ-ভ্রমণ বাড়তি বিনোদনের আনন্দ-উল্লাসের মাত্রা যোগ করেছে। 

[৫] এবারে ইদের বিনোদনের পরিসর বাড়িয়ে দিয়েছে দীর্ঘ ছুটি। সরকারি-বেসরকারি সংস্থাগুলোতে এবার ৬ দিনের ছুটি যোগ হয়েছে। অর্থাৎ বিনোদনের যথেষ্ট সময় পেয়েছেন কর্মচারিরা। এই ছুটির ইদের পরের তিনটি দিন পূর্ণ বিনোদনের সুযোগ করে দিয়েছে।

[৬] নগরীতে সবচেয়ে বেশি ভিড় জিয়া শিশু পার্ক ও পদ্মা গার্ডেনে। সীমান্ত নোঙর পেরিয়ে সামান্য পথ পেরুলেই চোখে পড়ে সুদৃশ্য গ্যালারি সমৃদ্ধ মুক্তমঞ্চ। এটি লালন শাহ পার্ক। আঁকাবাঁকা সিঁড়ির মতো সাজানো-গোছানো গ্যালারিতে বসে অনায়াসে দেখা যায় পদ্মার অপরূপ দৃশ্য। লালন শাহ পার্ক পেরিয়ে একটু এগিয়ে গেলেই চোখে পড়বে হযরত শাহ মখদুমের (রহ.) মাজার। নদীর পাড়ঘেঁষে এ মাজারের অবস্থান। মাজার জিয়ারত কিংবা পরিদর্শনে এসে এক পলকের দেখা মেলে পদ্মা নদীর। 

[৭] মাজার সড়কের এপারেই নদীর ঘাট পর্যন্ত সুরম্য সিঁড়ি নির্মান করেছে সিটি করপোরেশন। এখানেও রয়েছে প্রচুর পরিমাণে দর্শনার্থী।

[৮] ঈদের দিন বিকেল থেকে রাজশাহীর বিনোদন স্পটগুলো গুলো ঘুরে দেখা যায়, বন্ধু-বান্ধবের সাথে ছবি তোলা, প্রিয়জনের সাথে হাঁটা, বিভিন্ন ধরণের খাবার খাওয়া, নৌকায় ঘুরে বেড়ানো নিয়ে যেন মেতে উঠেছে। পানিতে পা ডুবিয়ে কেউ পদ্মার নতুন পানিতে নৌকা ভ্রমণ করে। আবার কেউ আদরের ছোট্ট সন্তানটিকে নিয়ে যান মজার মজার খেলাঘর দেখাতে। নগরীর শহীদ কামারুজ্জামান কেন্দ্রীয় উদ্যানে সকাল থেকেই বিনোপ্রেমীদের সমাগম ঘটে। 

[৯] শুধু মহানগরী নয়, দর্শনার্থীরা জেলার বিভিন্ন স্থান ও দূরদুরান্ত থেকে আসেন বাড়তি বিনোদনের জন্য। কেউ বাস, মিনিট্রাক, পিক আপ ভ্যান, অটোরিকশাসহ বিভিন্ন বাহনে চেপে আসেন এসব বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে।

প্রতিনিধি/একে

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়