শিরোনাম

প্রকাশিত : ০৩ অক্টোবর, ২০২২, ০২:১২ দুপুর
আপডেট : ০৩ অক্টোবর, ২০২২, ০৩:০৮ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

বিয়ের ২০ দিন পরে স্বামীকে জবাই করে হত্যা

নিহত সাব্বির

ফয়সাল চৌধুরী, কুষ্টিয়া : জেলা শহরের আড়ুয়াপাড়া এলাকার বিয়ের ২০ দিন পরে পারিবারিক কলহের জেরে সাব্বির আহমেদ (৪০) নামে এক ব্যক্তিকে জবাই করে হত্যা করা হয়েছে। 

সোমবার (৩ অক্টোবর) ভোর তিনটার দিকে আড়ুয়াপাড়ার ছোট ওয়ার্লেস এলাকায় সাব্বির নামের ওই ব্যক্তির নিজ বাড়িতে ধারালো ছুরি দিয়ে গলা কেটে রেখে পালিয়ে যায় তার দ্বিতীয় স্ত্রী রজিনা খাতুন। পরে পরিবারের লোকজন গুরুতর আহত অবস্থায় সাব্বিরকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল ৭টায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। 

নিহত সাব্বির আড়ুয়াপাড়া ছোট ওয়ার্লেস এলাকার মৃত রমজান আলীর ছেলে। 

নিহতের ছোট ভাই শাম্মী জানান, কিছুদিন আগে উত্তর লাহিনী পাড়ার শামসুলের মেয়ের সাথে তার ভাইয়ের দ্বিতীয় বিবাহ হয়। বিয়ের ২০ দিন পর আজ সোমবার ভোর তিনটার দিকে দ্বিতীয় স্ত্রী রোজিনা খাতুন বড় ভাই সাব্বিরকে ধারালো ছুরি দিয়ে গলা কেটে পালিয়ে যায়। আহত অবস্থায় সাব্বির ঘরের দরজায় জোরে জোরে শব্দ করতে থাকেন।

পরে মা দরজা খুলে দেখেন সাব্বিরের ঘাড় থেকে রক্ত বেরোচ্ছে। সাব্বির মাকে বিষয়টি জানান ও হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলেন। পরিবারের লোকজন গুরুতর আহত অবস্থায় সাব্বিরকে উদ্ধার করে দ্রুত হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল ৭ টার দিকে  তার মৃত্যু হয়। 

নিহতের ছোট ভাই শাম্মী আরো জানান, কোকের সাথে ঘুমের বড়ি  মিশে তার ভাইকে আগে দুর্বল করেন। এরপর  আতায় নামে একজন ও তার ভাইয়ের স্ত্রী দুজন মিলে সাব্বিরকে জবাই করে।

নিহতের চাচাতো ভাই তামিম জানান, অনেকদিন আগেই সাব্বিরের আগে স্ত্রীর সাথে তার ছাড়াছাড়ি হয়ে গেছে। সাব্বিরের আগের পক্ষের দুই কন্যা রয়েছে। বড় মেয়ে সাব্বিরের কাছে থাকে আর ছোট মেয়ে তার আগের স্ত্রীর সাথে ঢাকায় বসবাস করেন।  

কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দেলোয়ার হোসেন বলেন,  প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে তাকে ধারালো ছুরি দিয়ে শ্বাসনালী কেটে ফেলার কারণে তার মৃত্যু হয়েছে। আমরা জানতে পেরেছি স্বামী- স্ত্রী এক রুমেই ছিলেন। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ময়না তদন্তের জন্য নিহতের মরদেহ কুষ্টিয়া জেলা হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট পেলে বিষয়টি পরিষ্কার হয়ে যাবে। হত্যfকারীদের ধরার জন্য অভিযান চলমান রয়েছে। সম্পাদনা : জেরিন আহমেদ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়