শিরোনাম

প্রকাশিত : ০৭ অক্টোবর, ২০২২, ০৬:২৪ বিকাল
আপডেট : ০৭ অক্টোবর, ২০২২, ০৬:২৪ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

স্ত্রীর স্বীকৃতির দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন

আবু হাসাদ, রাজশাহী : রাজশাহীর পুঠিয়ায় এক সন্তানের জননী স্ত্রীর স্বীকৃতির দাবি নিয়ে গত দুইদিন থেকে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান করছেন। ভুক্তভোগি নারী অভিযোগ করে বলেন, গত ৭ বছর থেকে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক। সে সূত্রে ১৬ দিন আগে গোপনে তাদের বিয়েও হয়েছে। এখন তার প্রেমিক স্ত্রীর স্বীকৃতি দিচ্ছেন না। এদিকে প্রেমিকা বাড়িতে অবস্থান নেয়ার বিষয়টি টেরপেয়ে পালিয়ে গেছেন প্রেমিক।

বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলার বানেশ্বর ইউনিয়নের নামাজ গ্রাম হাজীপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।প্রেমিক আহসান হাবীব (২৫) ওই গ্রামের এনতাজ আলীর ছেলে ও প্রেমিকা সোনিয়া খাতুন (২৮) একই গ্রামের মৃত বাচ্ছু আলীর মেয়ে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বানেশ্বর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড সদস্য আলমগীর হোসেন। তিনি বলেন, ছেলের পরিবারকে বলা হয়েছিল পারিবারিক ভাবে বিষয়টি সমাধান করতে।

কিন্তু তারা সেই সমাধানে আসছেন না। বরং ওই মেয়েকে গতকাল ছেলের বাড়ির লোকজন মারধর করেছে। তাই মেয়ের পরিবারকে আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণ করতে বলা হয়েছে।

ভুক্তভোগি সোনিয়া খাতুন বলেন, প্রথম স্বামির থেকে বিচ্ছেদ হয় ১০ বছর আগে। সে সময় একমাত্র ছেলেকে নিয়ে মায়ের সাথে বসবাস করি।

এরমধ্যে একই পাড়ার আহসানের সাথে গত ৭ বছর থেকে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। সে সূত্র গত মাসের ২০ তারিখে গোপনে জিউপাড়া ইউনিয়ন কাজির মাধ্যমে আমাদের বিয়ে হয়। তিনি বলেন, বিয়ের পর হটাৎ আহসান মুঠোফোনে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়।

যার কারণে গত বৃহস্পতিবার দুপুরে আহসান বাড়িতে গেলে তার পরিবারের লোকজন আমাকে মারধর করেছে। বিষয়টি থানা পুলিশ ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিকে অবহিত করেছি। তবে রহস্যজনক কারণে তারা কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছেন না। তিনি বলেন, আমি অসহায় এতিম।

বিষয়টি নিয়ে এখন সমাজে আমাকে হেয় হতে হচ্ছে। আহসান আমাকে স্বীকৃতি না দিলে এই মুহুর্তে আত্নহত্যা ছাড়া কোনো পথ খোলা নেই।

এদিকে আহসানের পিতা এনতাজ আলী বলেন, ওই মেয়ে কৌশলে আমার ছেলেকে বিয়ে করেছে। যা সামাজিক ভাবে গ্রহন যোগ্য নয়।

আর মেয়েটি গতকাল আমাদের বাড়িতে এসেছে। তবে কেউ তার সাথে খারাপ আচারণ করেননি।থানার ওসি সোহরাওয়ার্দী হোসেন বলেন, যদ্দুর শুনেছি ছেলে-মেয়ে দুজনে গোপনে বিয়ে করেছে।

এখন মেয়েটি স্ত্রীর স্বীকৃতি দাবি নিয়ে ওই ছেলের বাড়িতে উঠেছে। তবে ছেলে স্বীকৃতি না দিলে, ওই মেয়ে আইনের আশ্রয় নিতে পারেন।তবে এখনো পর্যন্ত এ বিষয়ে কেও কোনো অভিযোগ দেননি।

প্রতিনিধি / এ এইচ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়