প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নেদারল্যান্ডসে লকডাউন, পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ (ভিডিও)

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস এখনও দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। বিশেষ করে শীতের মৌসুমে করোনা সংক্রমণ বাড়ার প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। ইউরোপের কয়েকটি দেশে নতুন করে করোনা সংক্রমণ বাড়ার খবরের মধ্যেই দেশজুড়ে আংশিক লকডাউন ঘোষণা করেছে নেদারল্যান্ডস। আরটিভি

শনিবার (১৩ নভেম্বর) থেকে তিন সপ্তাহের জন্য লকডাউন ঘোষণা করেছে নেদারল্যান্ডস। দেশটিতে রাত ৮টার মধ্যে বার, রেস্তোরাঁ ও সুপার মার্কেট বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে সন্ধ্যা ৬টার পর জরুরি পণ্যের দোকান ছাড়া অন্যান্য দোকান বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে।

নেদারল্যান্ডসে লকডাউনের ঘোষণার পর দ্য হেগ শহরে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েছেন লকডাউনবিরোধী বিক্ষোভকারীরা। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম রয়টার্স এ বিষয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

এতে বলা হয়েছে, শুক্রবার লকডাউন ঘোষণার সময় নেদারল্যান্ডসের প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুট জনগণকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন। একইসঙ্গে সম্ভব হলে ঘর থেকে অফিস করারও অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

নেদারল্যান্ডসের জনসংখ্যার প্রায় ৮৫ শতাংশ মানুষকে করোনাভাইরাসের পূর্ণ ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। এখনও যারা টিকা পাননি তাদের খুব জরুরি দরকার ছাড়া বাইরে বের না হওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী রুট।

নেদারল্যান্ডসের পাবলিক হেলথ ইনস্টিটিউট বৃহস্পতিবার জানিয়েছিল, ২৪ ঘণ্টায় ১৬ হাজার ৩৬৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। দেশটিতে করোনা শনাক্ত হওয়ার পর ১৮ হাজার ৬০০ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। করোনা মহামারি পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় এ বছরের সেপ্টেম্বরে লকডাউন তুলে নিয়েছিল নেদারল্যান্ডস।

শুক্রবার কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত এক সপ্তাহে করোনাভাইরাসের বৈশ্বিক সংক্রমণের গড়ের অর্ধেকের বেশি ধরা পড়েছে ইউরোপে। এ সময়ে মৃতের হারও ইউরোপে বেশি।

৯ নভেম্বর প্রকাশিত বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে শুধু রাশিয়াসহ ইউরোপেই করোনা সংক্রমণ নতুন করে বেড়েছে। অন্যান্য দেশে এই হার যখন স্থিতিশীল বা কমার দিকে, তখন ইউরোপে ওই সপ্তাহে সংক্রমণ বেড়েছে ৭ শতাংশ। এ ছাড়া এ সময়ে মৃতের হারও ১০ শতাংশ বেড়েছে।

শুক্রবার অস্ট্রিয়ার চ্যান্সেলর আলেক্সান্দার স্ল্যাচেনবার্গ জানিয়েছেন, আগামী সপ্তাহ থেকে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ধরা পড়া দুটি অঞ্চলে টিকা না নেয়াদের জন্য লকডাউন আরোপ করা হবে। পরে এই লকডাউন দেশজুড়ে দেয়ার আশঙ্কাও রয়েছে।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ কমাতে নতুন করে বিধিনিষেধ কঠোর করেছে চেক রিপাবলিক, স্লোভাকিয়া ও রাশিয়া।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত