প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আইসিইউতে থাকা স্বামীর জন্য দোয়া চাইলেন শাবনাজ

বিনোদন ডেস্ক: বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থ নব্বই দশকের জনপ্রিয় চিত্রনায়ক নাঈম। সফল বাইপাস সার্জারি শেষে এখন চিকিৎসকদের নিবিড় পর্যবেক্ষণে আছেন তিনি। ৭ নভেম্বর রাত দুইটা থেকে সকাল নয়টা পর্যন্ত টানা অপারেশন চলে এই অভিনেতার। প্রায় পাঁচ ঘন্টা পর তার জ্ঞান ফিরেছে। স্বামীর সুস্থতার জন্য সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন নাঈমের স্ত্রী অভিনেত্রী শাবনাজ। আর টিভি

হাসপাতাল থেকে শাবনাজের ছোট বোন অভিনেত্রী তাহমিনা সুলতানা মৌ গণমাধ্যমকে জানান, ‘আলহামদুলিল্লাহ, ভাইয়ার (নাঈম) জ্ঞান ফিরেছে। ইশারায় আপার (শাবনাজ) সঙ্গে কথা বলেছেন। তিনি নিবিড় পর্যবেক্ষণে আছেন। বেশ কদিন হাসপাতালে থাকতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আগে থেকেই দুলাভাইয়ের হার্টে সমস্যা ছিল। বেশ কদিন ধরেই তার বুকে ব্যথা। আস্তে আস্তে ব্যথা বাড়ছিল। ভাইয়া ভেবেছিলেন, ব্যাকপেইন। ব্যথা বাড়তে থাকায় চিকিৎসক দেখাতে হাসপাতালে আসেন। শারীরিক পরীক্ষা–নিরীক্ষা করে চিকিৎসকেরা দ্রুত অপারেশনের পরামর্শ দেন। গত রাতে ভাইয়ার অপারেশন হয়েছে। আলহামদুলিল্লাহ, বাইপাস সার্জারিটা ভালো মতোই হয়ে গেছে। চিকিৎসকেরা তাদের সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছেন।’

ঢাকাই ছবির নব্বই দশকের তুমুল জনপ্রিয় জুটি নাঈম-শাবনাজ। চলচ্চিত্র নির্মাতা এহতেশাম পরিচালিত ‘চাঁদনী’ ছবির মাধ্যমে এই জুটির অভিষেক হয়। এই জুটিকে দর্শক দারুণভাবে গ্রহণ করেছিল। নাঈম-শাবনাজ অভিনীত অধিকাংশ ছবিই ছিল ব্যবসাসফল। তারা জুটি বেঁধে ২০টির মতো ছবিতে অভিনয় করেন। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য- জিদ, লাভ, চোখে চোখে, অনুতপ্ত, বিষের বাঁশি, সোনিয়া, টাকার অহংকার, ঘরে ঘরে যুদ্ধ প্রভৃতি।

চলচ্চিত্রে কাজের সুবাদে নাঈম-শাবনাজ একে অন্যের প্রেমে জড়িয়ে পড়েন। পর্দার গণ্ডি পেরিয়ে বাস্তব জীবনেও ভালোবেসে ঘর বাঁধেন তারা। তাদের ঘরে রয়েছে দুই কন্যা সন্তান নামিরা ও মাহদিয়া। সাফল্যের চূড়ায় থাকতেই এই জুটি একসঙ্গে চলচ্চিত্রাঙ্গন থেকে দূরে সরে যান।

বর্তমানে নাঈম মনোযোগী তার ব্যবসা নিয়ে। টাঙ্গাইলে দেলদুয়ার থানার পাথরাইলে লোক লস্কর নিয়ে কৃষিকাজে মনোনিবেশ করছেন করটিয়া জমিদার বাড়ির সন্তান। কৃষিকাজের ছবি অনেক সময়ই ফেসবুকে আপলোড করেন তিনি। অন্যদিকে তার সহধর্মিণী শাবনাজ সংসারে ব্যস্ত সময় পার করছেন।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত