প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] আইএসের দ্বিতীয় প্রধান নেতা জসিম গ্রেপ্তার: ইরাক

মিনহাজুল আবেদীন: [২] জঙ্গি গোষ্ঠী আইএসের দ্বিতীয় প্রধান নেতা ও অর্থনৈতিক প্রধান সামি জসিম আল-জাবুরিকে গ্রেপ্তারের দাবি করেছে ইরাক সরকার। ডিবিসি টিভি

[৩] সোমবার (১১ অক্টোবর) দেশটির প্রধানমন্ত্রী মুস্তফা আল-খাদেমি এ দাবি করেন। তাকে ইরাকের সীমান্ত এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানান তিনি।

[৪] জসিমের বিরুদ্ধে সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলোকে অর্থ সহায়তা দেয়ার অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া তিনি নিহত নেতা আবু বকর আল-বাগদাদির ডেপুটি হিসেবে কাজ করছেন। যুক্তরাষ্ট্র তাকে ধরিয়ে দিলে পাঁচ মিলিয়ন ডলার পুরস্কারের ঘোষণা দিয়েছিলো। দেশ রূপান্তর

[৫] ইরাকের প্রধানমন্ত্রী সোমবার টুইটারে জানান, যখন আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী ইরাকের নির্বাচনী দায়িত্ব পালন করছিলেন, তখন তাদের সহকর্মীরা (ইরাকের জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থা) একটি জটিল বহিঃঅভিযান পরিচালনা করে সামি জসিমকে পাকড়াও করে। তবে এর বেশি কোনো তথ্য দিতে তিনি রাজি হননি।

[৬] যুক্তরাষ্ট্রের ভাষ্য, জসিমই ছিলো বাগদাদির পরবর্তী আইএসের মূলকর্তা। তার মাধ্যমে তেল, খনিজসহ গুরুত্বপূর্ণ সম্পদ পাচার করে আইএস অর্থ সংস্থান করত। ২০১৫ সালে যুক্তরাষ্ট্র তাকে বিশ্ব সন্ত্রাসী হিসেবে অ্যাখ্যা দেয়।

[৭] জসিমকে কবে গ্রেপ্তার করা হয় সে বিষয়েও কোনো তথ্য দেননি দেশটির প্রধানমন্ত্রী। তবে রোববার তিনি সংবাদমাধ্যমকে বলেন, আগামীকাল (সোমবার) আমরা নিরাপত্তা সংশ্লিষ্ট একটি বড় খবর দেবো। আজ দেবো না, কারণ আমি চাই আজ জনগণ শান্তিতে ভোট দিক। ডেইলি মেইল

[৮] ২০১৪ সালে ইরাকের বড় একটি অংশ দখল করে আইএস। ২০১৭ সালে তাদের বিরুদ্ধে নিজেদের বিজয়ী ঘোষণা করে ইরাক সরকার। ডোনাল্ড ট্রাম্প নেতৃত্বাধীনা যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে যৌথ অভিযানে ২০১৯ সালে আইএস প্রধান আবু বকর আল-বাগদাদিকে হত্য করে ইরাক সরকার। এরপর থেকে জসিমের নেতৃত্বে আইএস ইরাকে বিভিন্ন অংশে হামলা চালায় ও ইরাক-সিরিয়া সীমান্তে অবস্থান নেয় বলে জানায় যুক্তরাষ্ট্র।

[৯] ২০০৩ সালে সাদ্দাম হোসেনকে উৎখাতের পর প্রথমবারের মতো কোনো ভোট অনুষ্ঠিত হচ্ছে ইরাকে। রোববার ওই ভোটগ্রহণ শুরু হয়। পশ্চিমাপন্থী হিসেবে পরিচিত ইরাকের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী মুস্তাফা আল খাদিমি চাচ্ছেন ইরাককে মধ্যপ্রাচ্যে একটি নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য রাষ্ট্র হিসেবে উপস্থাপন করতে। আল জাজিরা

সর্বশেষ