প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বিটিভির কালজয়ী নাটকের গুণী চিত্রগ্রাহক সমীর কুশারী মারা গেছেন

খালিদ আহমেদ: [২] স্ত্রী জয়া কুশারী বলেন, ‘আজ রোববার সকালে রাজধানীর একটি হাসপাতালে তিনি মারা যান। কোভিড পরবর্তী জটিলতায় মারা যান তিনি। সেপ্টেম্বর মাসের শুরুর দিকে কোভিডে আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি।’

[৩] তিনি আরও বলেন, ‘গার্ড অব অনার প্রদান শেষে আজ রাতেই সমীর কুশারীর শেষকৃত্য অনুষ্ঠিত হবে। আমরা তার মরদেহ রাজারবাগ কালিমন্দিরে নিয়ে এসেছি। তার আত্মার শান্তির জন্য সবার কাছে আশীর্বাদ প্রার্থনা করছি।’

[৪] ‘সংশপ্তক’, ‘বহুব্রীহি’, ‘অয়োময়’, ‘এইসব দিনরাত্রি’, ‘পাথর সময়’, ‘সাত সমুদ্দুর’, ‘আমার দেশের লাগি’সহ অনেক কালজয়ী নাটকের চিত্রগ্রাহক ছিলেন তিনি।

[৫] ১৯৫১ সালে সমীর কুশারী ঢাকার আরমানিটোলায় জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা একুশে পদক প্রাপ্ত রণেন কুশারী রেডিও ব্যক্তিত্ব ছিলেন।

[৬] সমীর কুশারী ১৯৬৯ সালে ‘জলছবি’ সিনেমা দিয়ে চিত্রগ্রাহক হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেন। এই সিনেমায় সাধন রায়ের সহকারী হিসেবে কাজ করেন তিনি। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় স্বাধীন বাংলা বেতারে যোগ দিয়েছিলেন সমীর কুশারী।

[৭] ‘তিতাস একটি নদীর’ চলচ্চিত্র সহকারী চিত্রগ্রাহক ছিলেন তিনি। এছাড়াও, আরও কিছু সিনেমাতে চিত্রগ্রাহক হিসেবে কাজ করেছেন তিনি।

[৮] সমীর কুশারী ক্যারিয়ারের দীর্ঘ সময় কাটিয়েছেন বিটিভিতে। প্রায় টানা চার দশক বিটিভিতে চিত্রগ্রাহক হিসেবে অনেক কালজয়ী নাটক ও ম্যাগাজিন অনুষ্ঠানের সঙ্গে জড়িত ছিলেন। ৭০-এর দশকের শেষ দিকে তিনি বিটিভিতে যোগ দেন।

[৯] ২০০৯ সালে ডিরেক্টর অব ফটোগ্রাফি হিসেবে অবসরে যান। তারপর এই একই পদে দেশ টিভিতে কাজ করেছেন। বাংলাদেশের টেলিভিশনের ইতিহাসে প্রথমবার ৪৫ মিনিট নাটকের চিত্রগ্রাহকও তিনি। দীর্ঘ এই নাটকটি এক ক্যামেরায় ও এক শটে ধারণ করেছিলেন।

[১০] ২০০১ সালে রমনার বটমূলে ভয়াবহ বোমা হামলার দৃশ্য ক্যামেরায় ধারণ করেছিলেন সমীর কুশারী।

[১১] সংশপ্তক নাটকের হুরমতি চরিত্রের খ্যাতিমান অভিনেত্রী ফেরদৌসী মজুমদার বলেন, ‘সমীর কুশারী খুব হাসি-খুশি মানুষ ছিলেন। আমরা তাকে ঠান্ডা মাথার মানুষ হিসেবে চিনতাম। কখনো তাকে রাগ করতে দেখিনি। ছবি তুলতে ভালোবাসতেন। একজন ভালো মানুষ হিসেবে সারাজীবন আমার মনে গেঁথে থাকবেন তিনি।’

 

 

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত