প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] কিপিং ছাড়াতে মুশফিকের জন্য ভালো হয়েছে: মোহাম্মদ আশরাফুল

মাহিন সরকার : [২] সোহানের সাথে কিপিংয়ে ভাগাভাগি, এরপর হঠাৎ প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো জানালেন, সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে আর কিপিংটাই করতে চাননা মুশফিকুর রহিম। অনেকেই মুশফিকের এই সিদ্ধান্তকে মনে করছেন অভিমানের সিদ্ধান্ত। তবে সেটা অভিমান হক বা বুঝে শুনেই হোক এমন সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক মোহাম্মদ আশরাফুল। তিনি মনে করেন এতেই মঙ্গল হয়েছে মুশফিকের। নিজের ইউটিউব চ্যানেলে এক ভিডিও বার্তায় নিজের বক্তব্যের প্রেক্ষিতে যুক্তিও দেন তিনি।

[৩] আশরাফুল বলেন, লর্ডসে অভিষেকের সময় শুধু ব্যাটসম্যান হিসেবে অভিষেক হয়েছিল মুশফিকের। তবে ধীরে ধীরে সেরা উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যানে পরিণত হয়েছেন। প্রায় ১৬ বছর ধরে উইকেটকিপিং করছেন তিনি। এখন থেকে আর টি-টোয়েন্টিতে কিপিং করবেন না বলে দিয়েছেন। টেস্ট ক্রিকেটেও গত দু-তিন বছর তিনি কিপিং করছেন না। আমরা যেমন দেখেছি (কুমার) সাঙ্গাকারাকে কিপিং ছেড়ে ব্যাটিংয়ে মনোযোগ দিয়েছেন। মুশফিক নিজের তিনটা ডাবল সেঞ্চুরির মধ্যে শেষেরটা করেছেন কিপিং ছাড়াই।

[৪] অবশ্যই মুশফিকের এটা একটা প্রিয় জিনিস ছিল, কিপিং করা। সেটা টি-টোয়েন্টিতে আর করবেন না বলেছেন। টেস্ট ক্রিকেটেও আগে থেকেই করছেন না। তাই আমি এখন মুশফিকের কাছ থেকে ব্যাটিংয়ে আরও বেশি বেশি রানের আশা করব। এখনও তিনি অনেক রান করেন। এর থেকে আরও বেশি আশা করব।

[৫] তিনি আরও বলেন, এখন তিনি ব্যাটিং নিয়ে বেশি সময় দিতে পারবেন। ফিল্ডিংটা উপভোগ করবেন। কিপিংয়ে একটা আলাদা চাপ থাকতো এবং আলাদা একটা পরিশ্রমও বটে। সেই জায়গা থেকে আমি মনে করি, এখন শুধু মনোযোগটা থাকবে ব্যাটিংয়ে।

[৬] অসাধারণ একজন খেলোয়াড় মুশফিক, কঠোর পরিশ্রমী। দলের সেরা ব্যাটসম্যানের কিপিং করে আবার ব্যাটিং করাটা একটু কঠিনই বটে। আমি বলবো, এখন কিপিং না করাটা একটু স্বস্তিদায়ক হবে। আরও ৫-৬ বছর তিনি ক্রিকেট খেলবেন আশা করি। সেই জায়গায় আমরা ব্যাটসম্যান মুশফিককে দেখবো।

[৭] নুরুল হাসান সোহান শুরু থেকে দলের সেরা উইকেটরক্ষক ছিল। কিন্তু ব্যাটিংয়ের জন্য দলের নিয়মিত সদস্য হতে পারছিল না। এখন ঘরোয়া ক্রিকেটে অসাধারণ পারফরম্যান্স করায় তাকে নিয়মিত সদস্য করার চিন্তাভাবনা করছে টিম ম্যানেজম্যান্ট। সেই জায়গায়ই মুশফিক নিজে থেকে সরে গেছেন কিপিংটা ছেড়ে, শুধু ব্যাটিংয়ে মনোযোগ দেবেন।

সর্বাধিক পঠিত