প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] করোনায় আরো ১৪৫ জনের মৃত্যু, প্রাণহানি ছাড়ালো ২৫ হাজার

শাহীন খন্দকার ও মিনহাজুল আবেদীন: [২] এ নিয়ে সারাদেশে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৫ হাজার ২৩ জন। একদিনে নতুন করোনায় শনাক্ত ৫ হাজার ৯৯৩ জন। এ পর্যন্ত সারা দেশে করোনায় শনাক্ত দাঁড়ালো ১৪ লাখ ৫৩ হাজার ২০৩ জন। শুক্রবার (২০ আগস্ট) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাছিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

[৩] শুক্রবার (২০ আগস্ট) সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় (অ্যান্টিজেন টেস্টসহ) ৩৪ হাজার ৮৯২টি নমুনা পরীক্ষায় পাঁচ হাজার ৯৯৩ জন এই ভাইরাসে শনাক্ত হয়েছেন। এই সময়ে পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ১৭ দশমিক ১৮ শতাংশ। তবে শুরু থেকে মোট পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৯১ শতাংশ।

[৪] এছাড়া সরকারি ব্যবস্থাপনায় এখন পর্যন্ত ৬৩ লাখ ৬৪ হাজার ১৪৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে, বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয়েছে ২২ লাখ ২৯ হাজার ৭৯৯টি নমুনা। অর্থাৎ মোট পরীক্ষা করা হয়েছে ৮৫ লাখ ৯৩ হাজার ৯৪৬টি নমুনা। এর মধ্যে শনাক্ত হয়েছেন ১৪ লাখ ৫৩ হাজার ২০৩ জন। তাদের মধ্যে ২৪ ঘণ্টায় ১০ হাজার ৫৭৪ জনসহ মোট ১৩ লাখ ৪৭ হাজার ৭৫৫ জন সুস্থ হয়েছেন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯২ দশমিক ৭৪ শতাংশ।

[৫] গত ২৪ ঘণ্টায় যে ১৪৫ জন মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের মধ্যে ৭৭ জন পুরুষ ও ৬৮ জন নারী। তাদের মধ্যে ১৫৫ জনের হাসপাতালে (সরকারিতে ১২৯ জন, বেসরকারিতে ২৬ জন) ও বাড়িতে চার জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদেরসহ মৃতের মোট সংখ্যা ২৪ হাজার ৮৭৮ জন। মোট শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুহার এক দশমিক ৭২ শতাংশ।

[৬] এখন পর্যন্ত সরকারি হাসপাতালে মারা গিয়েছেন ২১ হাজার ২৫৯ জন, যার শতকরা হার ৮৫ দশমিক ৪৫ শতাংশ। বেসরকারি হাসপাতালে মারা গিয়েছেন ২ হাজার ৮৭২ জন, যার শতকরা হার ১১ দশমিক ৫৪ শতাংশ। বাসায় ৭১৪ জন মারা গিয়েছেন, যার শতকরা হার ২ দশমিক ৮৭। এছাড়াও মৃত অবস্থায় হাসপাতালে এসেছেন ৩৩ জন, যার শতকরা হার দশমিক ১৩ শতাংশ।

[৭] স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যমতে, এখন পর্যন্ত ১৬ হাজার ৩৯৬ জন পুরুষ মারা গেছেন যা মোট মৃত্যুর ৬৫ দশমিক ৫২ শতাংশ এবং আট হাজার ৬২৭ জন নারী মৃত্যুবরণ করেছেন যা মোট মৃত্যুর ৩৪ দশমিক ৪৮ শতাংশ।

[৮] বয়সভিত্তিক বিশ্লেষণে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত ১৫৯ জনের মধ্যে এগারো-বিশ বয়সী একজন, একুশ-ত্রিশ বয়সী পাঁচজন, ত্রিশোর্ধ্ব নয়জন, চল্লিশোর্ধ্ব ১৪ জন, পঞ্চাশোর্ধ্ব ১৯ জন, ষাটোর্ধ্ব ৫২ জন, সত্তরোর্ধ্ব ২৮ জন, আশি উর্ধ্ব ১১ জন ও নব্বই উর্ধ্ব ছয়জন। ঢাকা বিভাগে ৫০ জন, চট্টগ্রাম ৩৮ জন, রাজশাহী ১৩ জন, খুলনা ১২, বরিশাল ১০, সিলেট ২৩ জন, রংপুর আটজন ও ময়মনসিংহ পাঁচজন।

[৯] স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য মতে, ২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে করোনা ভাইরাসের প্রথম রোগী শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়। এরপর ধীরে ধীরে আক্রান্তের হার বাড়তে থাকে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত