প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আফগানিস্তানে গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা থাকবে না: তালিবান

বিদেশ ডেস্ক : তালিবানের অধীনে আফগানিস্তানে গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা থাকবে না। বুধবার সশস্ত্র গোষ্ঠীটির এক সিনিয়র সদস্য ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে এই তথ্য জানিয়েছে।

তালিবানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ায় থাকা ওয়াহিদুল্লাহ হাশিমি বলেন, কোনও গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা থাকবে না। কারণ আমাদের দেশে এর কোনও ভিত্তি নেই।

তিনি বলেন, কোন ধরনের রাজনৈতিক ব্যবস্থা আমরা আফগানিস্তানে প্রয়োগ করব তা নিয়ে আমরা আলোচনা করব না। কারণ এটি স্পষ্ট। এটি হলো শরিয়া আইন।

হাশিমি জানান, তালিবানের সর্বোচ্চ নেতা হাইবুতুল্লাহ আখুন্দজাদা দেশের সামগ্রিক দায়িত্বে থাকবেন।

তিনি আরও জানান, তালিবানের পক্ষ থেকে সাবেক পাইলট ও সেনাদের তাদের বাহিনীতে যোগ দেওয়ার আহ্বান জানানো হবে।

তালিবান নেতা বলেন, এদের বেশিরভাগ তুরস্ক, জার্মানি ও ইংল্যান্ডে প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। তাই আমরা তাদের নিজেদের দায়িত্বে ফিরে আসতে কথা বলব। অবশ্যই আমরা কিছু পরিবর্তন আনব, সেনাবাহিনীতে সংস্কার হবে। এরপরও তাদের প্রয়োজন রয়েছে এবং আমরা তাদের যোগ দিতে আহ্বান জানাব।

হাশিমি বলেন, আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পেতে পারেন সর্বোচ্চ নেতার কোনও একজন ডেপুটি।

তালিবানের তিনজন উপনেতা রয়েছেন। তারা হলেন, মোল্লাহ ওমরের ছেলে মওলভি ইয়াকুব, হাক্কানি নেটওয়ার্কের নেতা সিরাজুদ্দিন হাক্কানি, এবং দোহার রাজনৈতিক কার্যালয়ের প্রধান ও তালিবানের সহ-প্রতিষ্ঠাতা আব্দুল গনি বারাদার।

হাশিমি বলেছেন, এই সপ্তাহের শেষ দিকে তালিবান নেতৃত্বের সঙ্গে একটি বৈঠকে তিনি যোগ দেবেন। এতে দেশ পরিচালনা নিয়ে আলোচনা হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত