প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] অস্ট্রেলিয়ার মতো সুবিধা পাবে না নিউজিল্যান্ড, বললেন বিসিবি সিইও

স্পোর্টস ডেস্ক : [২] অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল অনেকগুলো শর্তারোপ করে বাংলাদেশ সফরে এসেছিল। এর মধ্যে অন্যতম ছিল বিমানবন্দরে সাধারণ স্থানে ইমিগ্রেশন না করা, তাদের হোটেলে বাইরের কোনো অতিথি না রাখা ও একই ভেন্যুতে সব ম্যাচ আয়োজন। হোটেল থেকে মাঠ- বায়ো বাবল নিশ্চিত করতে অজি বোর্ড ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) দিয়েছিল একগাদা শর্ত। আর তাদের সব শর্ত পূরণ করতে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) হিমশিম খেলেও পিছপা হয়নি।

[৩] সেই কারণে সিরিজটিও মাঠে গড়িয়েছে নির্বিঘ্নে। আগামী ২৪শে আগস্ট ঢাকায় পা রাখছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল। টাইগারদের সঙ্গে তারাও খেলবে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। তাই প্রশ্ন কিউই ক্রিকেট বোর্ডও (এনজেডসি) কি সিএ’র মত শর্তের ফর্দ দিয়েছে বিসিবিকে! জানা গেছে না, তারা তেমন সুবিধা পাচ্ছে না যেমনটা দেয়া হয়েছিল অজিদের।

[৪] এর অন্যতম কারণ ব্ল্যাকক্যাপরা আসছে কর্মাশিয়াল (পাবলিক) ফ্লাইটে, অস্ট্রেলিয়ার মতো চার্টার্ড বিমানে নয়। এ বিষয়ে বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামুদ্দিন চৌধুরী সুজন বলেন, কিছু (অস্ট্রেলিয়ার সুবিধার সঙ্গে) পরিবর্তন তো আছেই। অস্ট্রেলিয়া কিন্তু চার্টার্ড ফ্লাইটে এসেছিল, নিউজিল্যান্ডের পরিকল্পনা কমার্শিয়াল ফ্লাইটে আসার। সেক্ষেত্রে কিছুটা পরিবর্তন তো আসবেই। যেহেতু তারা কমার্শিয়াল ফ্লাইটে আসছে তাই ইমিগ্রেশন বা অন্যান্য প্রক্রিয়া অস্ট্রেলিয়ার মতো হবে না। তাও চেষ্টা থাকবে পাবলিক কন্ট্রাক্ট যথাসম্ভব কমিয়ে যেন হোটেলে আনা যায় তাদের।

[৫] তবে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড কিন্তু প্রায় সব সুবিধা অস্ট্রেলিয়ার মতোই চেয়েছিল। কিউইদের দাবি নিয়ে নিজামুদ্দিন সুজন বলেন, ‘যেহেতু ব্যাক টু ব্যাক সিরিজ হচ্ছে। আর ব্যবস্থাপনার দিক থেকে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড দুই দল প্রায় এক ঘরানার। তাই তাদের চাহিদা হলো অস্ট্রেলিয়াকে যে ধরনের বায়ো বাবল পরিবেশ দেয়া হয়েছিল তাদেরও যেন তা দেয়া হয়।

[৬] আমরাও চেষ্টা করছি একই রকমের বায়ো বাবল পরিবেশ রাখার। এটা শুধু অস্ট্রেলিয়া বা নিউজিল্যান্ড দলেরই না, আমাদের দলের ক্ষেত্রেও নিরাপদ থাকার ব্যাপার রয়েছে। সবকিছু বিবেচনা করে যতটুকু ভালো সম্ভব, সম্পূর্ণ বায়ো বাবল তৈরি করে সিরিজ আয়োজন করবো।

[৭] অন্যদিকে কিউইদের প্রস্তুতিম্যাচ না খেলার বিষয়ে নিজামুদ্দিন চৌধুরী বলেন, দেশের বাইরে গেলে আমরাও প্র্যাকটিস ম্যাচ চাই যাতে খেলোয়াড়রা কন্ডিশনের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে পারে। তাদেরও আমরা প্রস্তুতি ম্যাচের প্রস্তাব দিয়েছিলাম। কিন্তু অ্যাডিশনাল বায়ো বাবলের বিষয় আছে। অন্য ভেন্যুতে খেলা, সেখানে বায়োবাবল পরিবেশ তৈরি করতে হবে। এই ব্যাপারে নিউজিল্যান্ড নিরুৎসাহী। তারা চাচ্ছে যত কম চলাফেরায় সিরিজটা শেষ করা যায়। – বিসিবি/ এমজমনি

সর্বাধিক পঠিত