প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

তালেবানদের কাবুল ঘেরাওয়ে বিশ্ব নেতাদের প্রতিক্রিয়া

নিউজ ডেস্ক: তালেবান যোদ্ধাদের চারপাশ থেকে আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল ঘেরাওয়ের খবরে উদ্বেগ প্রকাশ করে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন বিশ্ব নেতারা। রোববার (১৫ আগস্ট) দেশটির রাজধানীতে প্রবেশ করে তালেবান। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তাদের সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেয়ার পরই একের পর এক প্রদেশ দখল করতে শুরু করে তারা। আরটিভি

এর আগে রাজধানী কাবুলে তালেবান সৈন্যরা ঢুকে পড়লে তাদের শান্ত থাকার আহবান জানানো হয় এবং আফগান সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল সাত্তার মির্জাওয়াল বলেন, শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর করা হবে।

তবে তালেবান যোদ্ধাদের দলে দলে রাজধানীতে প্রবেশ করায় বিশ্ব নেতারা উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। বিশ্বের বেশ কিছু দেশ এতে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে।

পাকিস্তান

পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জাহিদ হাফেজ চৌধুরী জিও নিউজকে বলেন, আফগানিস্তানের চলমান অস্থিতিশীলতা নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন। তবে এখন পর্যন্ত আফগানিস্তানে পাকিস্তানের দূতাবাস বন্ধ করার বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন

ইউরোপীয় কমিশনের সহ-সভাপতি মার্গারিটিস সিনাস এক টুইট বার্তায় বলেন, অভিবাসন প্রত্যাশীদের জন্য আমাদের নিয়মগুলো শেষ হয়ে গেছে। আমরা আর কত অপেক্ষা করব।

জো বাইডেন

তালেবানদের কাবুলে প্রবেশের আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, আফগান সামরিক বাহিনী যদি তাদের ক্ষমতা ধরে রাখতে না পারে তাহলে যুক্তরাষ্ট্র এক কিংবা পাঁচ বছরের জন্য সেনা পাঠালেও কোনো সমাধান বয়ে আনবে না।

তবে আফগানিস্তান থেকে মার্কিন দূতাবাস সরিয়ে নেয়ার বিষয়ে তালেবানদের পক্ষ থেকে চাপ আসলেও তারা তাদের নীতিতে অটল থাকবে বলে জানিয়েছেন দূতাবাসের একজন কর্মকর্তা।

রাশিয়া

রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা জামিন কাবুলভ বলেন, আফগানিস্তানের বিষয়ে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে জরুরি বৈঠকে বসতে অন্যান্য দেশের সঙ্গে আলোচনা করা হচ্ছে। এছাড়া আমরা আফগানিস্তানে শান্তি ফেরাতে কাজ করে যাচ্ছি।

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য দেশ হিসেবে রাশিয়াসহ আছে যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন, ফ্রান্স এবং চীন।

ভারত

কাবুলে ভারতীয় দূতাবাস বন্ধ করা হবে না। তবে নিরাপত্তার কারণে দূতাবাসের কর্মকর্তাদের দ্রুত সরিয়ে নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা।

যুক্তরাজ্য

আফগানিস্তানে চলমান সংকট নিয়ে বৈঠকে বসতে ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন এই মুহূর্তে গ্রীষ্মের ছুটিতে থাকা সংসদদের ছুটি বাতিল করতে পারে বলে স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে।

অস্ট্রেলিয়া

আফগানিস্তানে চলমান অস্থিরতা পুরো ইউরোপে ছড়িয়ে পড়বে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী আলেকজান্ডার শ্যালেনবার্গ। এই সংকট নিরসনে শিগগিরই আফগানিস্তানের পার্শ্ববর্তী দেশগুলোর সঙ্গে বৈঠকে বসবে অস্ট্রেলিয়া।

সুইডেন

আফগানিস্তান থেকে সুইডেন তাদের সব কর্মীদের সরিয়ে নেয়া ঘোষণা দিয়েছে।

সূত্র: আল-জাজিরা

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত