প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কান চলচ্চিত্র উৎসবে প্রশংসিত ‘রেহানা মরিয়ম নূর’

ইমরুল শাহেদ: কান চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ টিম উপস্থিত না থাকলেও ছবিটির ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ারে উপস্থিত ছিলেন তারা। কেন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ছিলেন না তার ব্যাখ্যা দিয়ে ছবিটির মূখ্য চরিত্র বাঁধন বলেছেন, ‘আমরা সবাই একসঙ্গে ফ্রান্সে এসেছি। আমরা একসঙ্গে চলাফেরা করছি। একজনকে বাদ দিয়েও আমরা অনুষ্ঠানে যোগদান করতে চাইনি।’

বুধবার বেলা সোয়া তিনটায় শুরু হয় ছবিটির প্রথম প্রিমিয়ার। এতে দর্শক সারিতে পাশাপাশি বসেছেন ছবিটির পরিচালক আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদসহ টিম সদস্যরা। বাংলাদেশের চলচ্চিত্র ইতিহাসে এবারই প্রথম কোনও ছবি কান উৎসবে অফিসিয়াল সিলেকসনের আঁ সার্তে রিগায় স্থান পেয়েছে। ছবিটির চিত্রনাট্য ও সম্পাদনা করেছেন নির্মাতা আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদ নিজেই।

প্রিমিয়ারের পর তারা দুপুরের খাবার খেতে বসে ফেসবুক লাইভে আসেন বাঁধন। তিনি আবেগে কোনো কথা বলতে পারছিলেন না। শুধু করোনা মহামারি নিয়েই কথা বলেছেন। ছবি সম্পর্কে কিছু বলার আগেই তার লাইভ অফ হয়ে যায়। সম্মানজনক কান চলচ্চিত্র উৎসবের অফিশিয়াল সিলেকশনে প্রদর্শিত প্রথম বাংলাদেশি ছবির গৌরব অর্জন করে ইতিহাসের পাতায় যুক্ত হলেন এই ছবির কলাকুশলীরা। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের সবচেয়ে বড় অর্জন এটাই। বুধবার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দর্শক সমাগম হতে থাকে সাল দুবুসিতে।

ঘড়ির কাঁটা ১১টার ঘরে যেতেই উপচে পড়া ভিড় জমে যায় ফটকে। ছবিটি দেখতে প্রত্যেককেই আগে থেকে টিকিট সংগ্রহ করতে হয়েছে। প্রদর্শনী শুরুর আগে সাল দুবুসির সামনে লালগালিচায় একসঙ্গে দাঁড়িয়েছেন সাদ ও তার ছবির কলাকুশলীরা। প্রদর্শনী শেষে মঞ্চে ওঠার পর আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদের হাতে মাইক্রোফোন ধরিয়ে দেন উৎসব আয়োজক থিয়েরি ফ্রেমো। আবেগাপ্লুত সাদ বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করতে পারছি না এখানে আসতে পেরেছি! আমাদের জন্য বিশেষ ব্যাপার হলো, কানের অফিশিয়াল সিলেকশনে বাংলাদেশের প্রথম ছবি এটাই। আমাদের কাছে ব্যাপারটা অবিশ্বাস্য।’

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত