প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে বড় ভাইকে খুন করে ছোট ভাই!

ওমর ফয়সাল : [২] ঘটনার ১১ দিনের মাথায় ফটিকছড়ি উপজেলার কাঞ্চননগরে খামারি যুবক মুহাম্মদ আলমগীর হত্যাকাণ্ডের রহস্য উন্মোচিত হয়েছে। আপন ছোট ভাই রাসেল ঘটনার দিন রাতে বড়ভাই আলমগীরকে কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে। পরে নাটক সাজাতে উদ্ধারকারী অন্যদের সাথে গুরুতর আহত আলমগীরকে হাসপাতালেও নিয়ে যায় ঘাতক রাসেল।

[৩] এ ঘটনায় পুলিশ তাৎক্ষণিক কাউকে গ্রেপ্তার করতে না পারলেও সন্দেহভাজন হিসেবে নিহত আলমগীরের পিতা বাহাদুর সর্দার, স্ত্রী সজিনা, ছোট ভাই রাসেল ও ভগ্নিপতি শাহ আলমকে আটক করে। পরবর্তীতে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করে আটককৃতদের ছেড়ে দিলেও সন্দেহ ঘনীভূত হওয়ায় ছোট ভাই রাসেলকে নজরদারিতে রাখে পুলিশ।

[৪] ১৬ জুন রাতে রাসেলকে পুনারায় থানায় এনে কৌশল পাল্টিয়ে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে তদন্তকারী টিম। জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে রাসেল আপন বড় ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করার কথা স্বীকার করে। পরে তার স্বীকারোক্তি মতে ঘটনাস্থল থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত একটি কুড়াল ও একটি রাম দা উদ্ধার করে পুলিশ। পারিবারিক বিরোধের জেরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে বলে পুলিশকে জানিয়েছে খুনী রাসেল। ১৭ জুন বৃহস্পতিবার সকালে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি গ্রহণের জন্য আসামীকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

[৫] এ ব্যাপারে ফটিকছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রবিউল ইসলাম বলেন, প্রথম দিকে নানা কৌশলে দায় এড়িয়ে যেতে চাইলেও শেষ পর্যন্ত আলমগীরকে হত্যার কথা স্বীকার করেছে ছোট ভাই রাসেল। জিজ্ঞাসাবাদে সে একাই এ হত্যাকাণ্ড সম্পন্ন করে বলে জানিয়েছে। হত্যার দায় স্বীকার করায় জবানবন্দি গ্রহণের জন্য আসামীকে আদালতে প্রেরণ হয়েছে।

[৬] উল্লেখ্য, ৬ জুন সোমবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার কাঞ্চননগর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের ঝরঝরি এলাকায় বসতঘরে ঢুকে খামারি মুহাম্মদ আলমগীরকে (৩৫) নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। নিহত আলমগীর পার্শ্ববর্তী পাইন্দং ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের লুলু চৌধুরী বাড়ির ইদ্রিস মিয়া বাহাদুরের দ্বিতীয় পুত্র। পরে এ ঘটনায় নিহতের পিতা বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামী করে ফটিকছড়ি থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

[৭] এদিকে, সম্প্রতি পার্শ্ববর্তী হাটহাজারী উপজেলার মন্দাকীনি এলাকায় আপন বড় ভাইয়ের হাতে নৃশংসভাবে ছোটভাই খুন হওয়ার ঘটনা রহস্য উন্মোচিত হতে না হতেই ফটিকছড়িতেও ছোট ভাইয়ের হাতে বড় ভাই খুন হওয়ার বিষয়টি ব্যাপকভাবে আলোচিত হচ্ছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত