প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ঢাকায় কমলেও ১১ জেলায় সংক্রমণ বেড়েছে: স্বাস্থ্য অধিদফতর

মুরাদ হাসান ও শিমুল মাহমুদ: [২] গত ২৪ ঘণ্টায় সীমান্তের ৮টি জেলায় মারা গেছেন ১০ জন। ৬৫ শতাংশ শনাক্তের হারে রেকর্ড ছাড়িয়েছে মোংলায়। হাসপাতাল গুলোতে বেড়েছে রোগীর চাপ। তবে রাজধানীর হাসপাতালগুলোতে করোনা রোগীর চাপ কম আছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। গতকাল বুধবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত বুলেটিনে রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক অধ্যাপক ডা. মো. নাজমুল ইসলাম বলেন, শনাক্ত হারের বিপরীতে ১১টি জেলায় সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি দেখা গেছে।

[৩] নওগাঁর জেলা সিভিল সার্জন ডা. এ বি এম আবু হানিফ বলছেন, গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। নতুন আক্রান্ত হয়েছেন ৬৭ জন। সাত দিনে সংক্রমণের হার ২৬ ভাগ থেকে ৩৯ ভাগে এসে ঠেকেছে। এই কারণে জেলার নওগাঁ পৌরসভা ও নিয়ামতপুর উপজেলায় ‘সর্বাত্মক লকডাউন’ জারি করা হয়েছে। বাকি অংশেও সরকারি বিধিনিষেধ কড়াকড়িভাবে পালন করতে হবে।

[৪] রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৩ জন করে এবং নাটোরে একজন করোনায় মারা গেছে। উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালগুলোতে নতুন রোগী ভর্তি হয়েছেন ২১ জন। এ নিয়ে শুধু রাজশাহীতেই ২২০ জন রোগী ভর্তি আছেন। হাসপাতালের ১৭টি আইসিউর একটিও ফাকা নেই।

[৫] কুড়িগ্রামে নতুন ৩১ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১১ জন পজিটিভ পাওয়া গেছে। আক্রান্তের হার ৩২ ভাগে পৌঁছেছে বলে জানান সিভিল সার্জন ডা. মো. হাবিবুর রহমান। দিনাজপুরে সীমান্তবর্তী সংক্রমণের হার বেড়ে ২৬ শতাংশে ঠেকেছে। হাসপাতালে নতুন আরো ৩৬ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন। যশোরে নতুন করে করোনার শনাক্ত হয়েছে ৪৩ জন। সংক্রমণের হার ২১ শতাংশ।

[৬] স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মুখপাত্র ডা. নাজমুল ইসলাম বলেন, করোনা আক্রান্ত রোগীদের শতকরা ৯০ ভাগই বাসায় থেকেই চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে যাচ্ছে। কিন্তু বাকি ১০ শতাংশ রোগীদের হাসপাতালে যেতে হচ্ছে এবং তাদের অনেকেরই অক্সিজেনের প্রয়োজন হচ্ছে। এ লক্ষ্যে সারাদেশেই আমাদের অক্সিজেন সরবরাহ পর্যাপ্ত পরিমাণে রয়েছে।

[৭] তিনি বলেন, সারাদেশে প্রায় এক হাজার ৫৮৯টি হাই ফ্লো ন্যাজাল ক্যানোলা এবং এক হাজার ৪৬৯টি অক্সিজেন কনসেনট্রেটর সরবরাহ করা হয়েছে। এছাড়াও ২৩ হাজারের বেশি অক্সিজেন সিলিন্ডার আমাদের সরবরাহ করা আছে।

[৮] নাজমুল ইসলাম বলেন, আমরা দেখছি সীমান্তবর্তী জেলাগুলোতে শতকরা হিসাবে শনাক্তের হার অন্য যেকোন জেলার তুলনায় অনেক বেশি বেড়ে গেছে। তবে আতঙ্কের কিছু নেই, সে জায়গাগুলোর হাসপাতালে পর্যাপ্ত পরিমাণ অক্সিজেনসহ চিকিৎসাসামগ্রী মজুত রাখা হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত