প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] নারীর টোপে মেহুল চোকসিকে ফাঁদে ফেলে পুলিশ

রাশিদুল ইসলাম : [২] বান্ধবীর সঙ্গে রোম্যান্টিক সফরে যাচ্ছিলেন মেহুল চোকসি। তবে অ্যান্টিগুয়া থেকে কিউবার পথে সেই যাত্রা খুব একটা সুখের হল না শেষমেশ। মাঝপথেই ডোমিনিকায় ধরা পড়েছেন কুখ্যাত হিরে ব্যবসায়ী। তার বিরুদ্ধে ভারতের বিভিন্ন ব্যাংক থেকে সহস্রাধিক কোটি রুপি ঋণ নিয়ে তা ফেরত না দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে।

[৩] অ্যান্টিগুয়া থেকে নিছক ঘুরতে কিউবায় যাচ্ছিলেন না মেহুল চোকসি। তিনি আসলে পালাচ্ছিলেন সে দেশে। যেহেতু কিউবায় প্রত্যর্পণের কোনও আইন নেই, তাই আপাতত কিউবাতেই থেকে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছিলনে তিনি। কিন্তু মাঝপথে ধরা পড়ে যান ডোমিনিকায়।

[৪] তবে তাঁর বান্ধবীও আটক হয়েছেন কিনা, তিনি কোন দেশের নারী তা স্পষ্ট করে কিছু জানা যায়নি। ওই নারী চোকসিকে ধরার পরিকল্পনার সঙ্গেই যুক্ত ছিলেন। অ্যান্টিগুয়াতেই থাকছিলেন তিনি। সকাল সন্ধে হাঁটতে বেরোনোর সময় নিজেই তিনি যেচে আলাপ ও বন্ধুত্ব করেন চোকসির সঙ্গে।

[৫] পুলিশের হাতে ধরা পড়ার সময়ে তার সঙ্গে ছিলেন বান্ধবী। হয়তো পালানোও যাতে যথেষ্ট রোম্যান্টিক ও আনন্দের হয়, সেই ভাবনাই ছিল চোকসির! সময়ও কাটাচ্ছিলেন তেমনই। কিউবা যাওয়ার পথে ডোমিনিকায় বান্ধবীর সঙ্গে নৌকা বিহারের সময় তিনি ধরা পড়েন।

[৬] ডোমিনিকার ডগলাস-চার্লস বিমানবন্দরে দাঁড়ানো প্রাইভেট জেট ভারত থেকে এসেছে। তাতে করে ভারত সরকার বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ আদালতের নথি পাঠিয়েছে বলে জানানো হয়। এর মাধ্যমে তারা দাবি করতে চাইছে, চোকসি সত্যিই একজন ফেরার।

[৭] তবে বান্ধবীর সঙ্গে মেহুল চোকসির রোম্যান্স দানা বাঁধতে না বাঁধতেই মাটি হয়ে যায়। নৌকাবিহারের মাঝপথে পুলিশের হাতে ধরা পড়ে যান তিনি। যে বিশেষ বান্ধবীর সঙ্গে রোম্যান্টিক সফরে যাচ্ছিলেন ভারতীয় ব্যবসায়ী তিনি আদেও তাঁর গার্লফ্রেন্ড ছিলেন না। বরং তিনি নাকি ছিলেন চোকসিকে ফাঁসানোর অন্যতম কারিগর। পুলিশের যে দল পরিকল্পনা করে ব্যবসায়ীকে পাকড়াও করেছেন সেই দলেরই একজন সদস্য ছিলেন ওই মোহময়ী নারী।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত