প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ফরিদপুরে বিকাশ চক্রের ১১ প্রতারক গ্রেফতার

সনত চক্রবর্ত্তী : ফরিদপুর পুলিশ সুপারের নতুন কার্যালয়ে বিকাশ চক্রের প্রতারক গ্রেফতার বিষয়ক সংবাদ সম্মেলনে করেছেন জেলা পুলিশ। আজ বেলা বারোটায় এক সংবাদ সম্মেলন হয়। সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জামাল পাশা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা গোয়েন্দা শাখার অফিসার্স ইনচার্জ সুমন রঞ্জন সরকার, নগরকান্দা সার্কেল এএসপি সুমিমুর রহমান রহমান ডিবির ওসি সুনীল কর্মকার প্রমূখ বিকাশ প্রতারক গ্রেফতার মালামাল উদ্ধার প্রসঙ্গে সংবাদ সম্মেলনে বলা হয় ভাঙ্গা থেকে বিকাশ প্রতারক গ্রেফতার ও মালামাল উদ্ধার করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয় গত ২২ মে রাত একটা ৩৫ ঘটিকায় ভাংগা থানা পুলিশের একটি চৌকস দল ভাংগা থানাধীন পল্লী বেড়া সাকিন এ চৌচালা টিনের ঘরের উত্তর পাশের পূর্বকনে কথিত বিকাশ অফিসে অভিযান পরিচালনা করে ঘটনার সাথে জড়িত আসামি ফিরোজ বেপারী পিতা আয়নাল বেপারী, রায়হান বেপারী পিতা শাহ আলম বেপারী, আকাশ বেপারী পিতা-মৃত জাহাঙ্গীর বেপারী, পল্লী বেড়া, শাকিব ফকির পিতা আদম ফকির, সং কাওলিবেরা, থানা ভাঙ্গা কে গ্রেফতার করা হয়। আসামিদের প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত বিভিন্ন কোম্পানির ১৬ টি মোবাইল সেট এবং বিকাশ প্রতারণা টাকা লেনদেনে কাজে ব্যবহৃত বিভিন্ন কোম্পানির ৪৫ টি সিম উদ্ধার করা হয়।

এবং ওই রাতে একটা ৪৫ মিনিটে ভাংগা থানা পুলিশের অপর একটি চৌকস দল কালামৃধা ইউপি মিয়াপাড়া সাকিন অবস্থিত আসামি ফারুক শেখ এর একতলা বসত বাড়ির ছাদের উপর ছোট কক্ষের ভেতর কথিত বিকাশ অফিসের অভিযান পরিচালনা করে বিকাশ প্রতারণা সাথে জড়িত থাকায় আসামি ফারুক শেখ (২৭) পিতা মিজান শেখ ওবায়দুর ওরফে ওবাইদর(৩৫) পিতা সালফু শিকদার উভয়ের বাড়ি মিয়াপাড়া, ইব্রাহিম মির পিতাঃ মোঃ সোহরাব মীর, মোঃ রাসেল তালুকদার পিতাঃ মোঃ নুরুল হক তালুকদার, মোহাম্মদ হানিফ মীর পিতা-মৃত মনিরউদ্দীন মির, সং জঙ্গল পাশা, সিদ্দিক মোল্লা পিতা মৃত ধলু মোল্লা, সং গোয়ালদী, আবু হানিফ খন্দকার (২২) পিতা মৃত মোঃ খন্দকার, থানা ভাঙ্গা জেলা ফরিদপুর থেকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামি দের নিকট হতে প্রচারণার কাজে ব্যবহৃত বিভিন্ন কোম্পানির টি মোবাইল সেট এবং বিকাশের টাকা লেনদেনের কাজে ব্যবহৃত ১৩ টি সিম উদ্ধার হয়। এরা সকলেই বিকাশ প্রতারক চক্রের সক্রিয় সদস্য। মোবাইল ফোনের মাধ্যমে নিজেদের কে বিকাশ কর্মকর্তা-কর্মচারী পরিচয় দান এর মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন লোকজনের সাথে প্রতারণা করে আসছিল। গ্রেফতারকৃতদের আসামিদের বিরুদ্ধে ভাংগা থানা সহ বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

১১ জন বিকাশ প্রতারক কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং তাদের কাছ থেকে ৩২ টি মোবাইল সেট ৫৮ টি সিম উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামি দের বিরুদ্ধে ভাঙ্গা থানায় মামলা নং ৩২ তারিখ ২২/৫/২১ এবং ভাংগা থানা মামলা নম্বর ৩৩ তারিখ ২২/৫/২০২১ ধারা ২০২৮সালের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের তারিখ২৩ ২৪ ৩০ ৩৬ধারায় পৃথক দুটি মামলা রুজু হয়েছে এবং অন্যান্য আসামিদের গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান অব্যাহত আছে

সর্বাধিক পঠিত