প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

৩৩৩-এ ফোন করে সরকারি ত্রাণ চাইলেন ৪ তলা ভবনের মালিক!

ডেস্ক রিপোর্ট  : চারতলা বাড়ি থাকা সত্ত্বেও ৩৩৩ নাম্বারে ক্ষুদে বার্তায় সরকারি ত্রাণের আবেদন করেন নারায়ণগঞ্জের ব্যবসায়ী ফরিদ আহমেদ।   এজন্য ৪ তলা ভবনের ওই মালিককে শাস্তিস্বরূপ ১০০ জন গরিব-দুঃস্থকে খাবার বিতরণের নির্দেশ দেয় উপজেলা প্রশাসন

৩৩৩ নম্বরে ফোন করে সরকারি ত্রাণ চেয়ে বিপাকে পড়েছেন ফরিদ আহমেদ ( ৫৫) নামে এক ব্যক্তি। চারতলা বাড়ি থাকা সত্ত্বেও ৩৩৩ নাম্বারে ক্ষুদে বার্তায় সরকারি ত্রাণের আবেদন করেন। পরে যাচাই-বাছাই করে নারায়ণগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন তার চারতলা বাড়ি ও আর্থিক সচ্ছলতার বিষয়টি জানতে পারলে তাকে শাস্তিস্বরূপ ১০০ জন দুঃস্থ পরিবারকে খাবার বিতরণের নির্দেশ দেন।

শুক্রবার (২১ মে) সন্ধ্যায় নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আরিফা জহুরা ঢাকা ট্রিবিউনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন। এর আগে বৃহস্পতিবার নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার দেওভোগ কাশিপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্ত ফরিদ আহমেদ নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার দেওভোগ কাশিপুর ইউনিয়নের স্থানীয় বাসিন্দা। পেশায় হোসিয়ারী ব্যবসায়ী ও একাধিক হোসিয়ারীর মালিক।

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আরিফা জহুরা জানান, করোনাভাইরাস মহামারির শুরু থেকেই ৩৩৩ নম্বরের মাধ্যমে সরকারিভাবে আমরা দুঃস্থ, অসচ্ছল পরিবারগুলোকে সহায়তা করে আসছি। ৩৩৩ নম্বরের ক্ষুদে বার্তা, কল দিলেই আমরা যাচাই-বাছাই করে পরিবারগুলোকে ত্রাণ সরবরাহ করছি। কিন্তু গত বুধবারের ঘটনাটা একটু অন্যরকম ছিলো। ফরিদ আহমেদ নামে ওই লোক ত্রাণ চেয়ে ৩৩৩ নম্বরের ক্ষুদে বার্তা পাঠায়। নিয়মানুযায়ী আমরা যাচাই-বাছাই শুরু করি। কিন্তু একপর্যায়ে জানতে পারি ওই লোকের চারতলা একটি ভবন আছে। পরে আমি ঘটনাস্থলে নিজে গিয়ে তার এ কর্মকাণ্ড সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বিষয়টি স্বীকার করেন। পরে তাকে শাস্তিস্বরূপ ১০০ জন গরিব-দুঃস্থকে খাবার বিতরণের নির্দেশ দেওয়া হয়। যাতে এ ধরনের কাজ করতে আর কেউ সাহস না পায়।

তিনি আরো জানান, শাস্তিটা একটু ভিন্ন। চাইলেই আর্থিকভাবে জরিমানা আদায় করা যেত। কিন্তু মানুষের মধ্যে সচেতনতা বাড়ানো জরুরি। তাই ওই অভিযুক্তকে ১০০ জনকে খাবার বিতরণের শাস্তি দেওয়া হয়। আগামীকাল শনিবার বিকেল ৪টার দিকে আমার উপস্থিতিতে খাবার বিতরণ করবে ফরিদ আহমেদ।

এ ধরনের ঘটনা দুঃখজনক উল্লেখ করে ইউএনও আরিফা জহুরা জানান, এ ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক। কোভিড মহামারিতে গরিব-দুঃস্থ, কর্মহীন মানুষের সহায়তার জন্য ৩৩৩ হটলাইন নম্বরটি খোলা হলেও মানুষ প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রয়োজনে বেশি ফোন দিয়ে থাকে। যারা সাহায্যে চান, খোঁজ নিলে দেখা যায় তাদের অধিকাংশই সচ্ছল পরিবারের। তারপরও আমরা সরকারের এ সহযোগিতা মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে কাজ করে যাচ্ছি।

সূত্র-

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত