প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] দেশেই করোনা টিকা তৈরির জোর চেষ্টা চলছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

শাহীন খন্দকার :[২] স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. জাহিদ মালেক আরও বলেছেন, ভারতসহ উন্নত দেশগুলোর চেয়ে আমাদের দেশের করোনা পরিস্থিতি অনেকটা ভাল। আমাদের চিকিৎসা ব্যবস্থাও ভালো। ইতোমধ্যে সরকার আমেরিকা, ইউরোপ ও ভারত থেকে টিকা আনার প্রচেষ্টা চালিয়েছে।

[৩] শনিবার সন্ধ্যায় মানিকগঞ্জ গড়পাড়ায় তার বাগান বাড়িতে ঈদ পরবর্তী শুভেচ্ছা বিমিময় সভায় এসব কথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, বিএনপি সব সময় সমালোচনা করে, তারা ভালো কিছু খুঁজে পান না। তারা শুধু সমালোচনাই করেছেন, মানুষের পাশে তাদের দাঁড়াতে দেখিনি, একটি লোককে সাহায্য করতে দেখিনি, খাবার দিতে দেখিনি। তাদের কথার রাজনীতি মানুষ আর গ্রহণ করে না। মানুষ চায় মানুষের পাশে দাঁড়াক, বিশেষ করে এই দুঃসময়ে।

[৪] তিনি আরও বলেন, আমরা লকডাউনে ছিলাম, ঈদের আগে দোকান-পাট খুলে দেওয়া হয়েছিল। যাতে মানুষ তাদের প্রিয়জনদের জন্য কিছু উপহার সামগ্রী ক্রয় করতে পারেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আমরা দেখেছি লাখ লাখ লোক বাজারে গিয়ে ঈদ সামগ্রী ক্রয় করেছে ও গ্রামের বাড়িতে গিয়েছে। সর্বত্রই স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষিত হয়েছে।

[৫] এছাড়া মানুষ যেভাবে বাড়িতে গেছে তাতে আমরা শংকিত। অথচ প্রধানমন্ত্রী আহবান করেছিলেন যার যার অবস্থানে থেকে ঈদ করার জন্য। মানুষ যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবেন এটাই প্রত্যাশা করি।

[৬] মন্ত্রী আরো বলেন, আজকে সাড়ে ছয় শতাংশ সংক্রমণ হার এটা কয়েক মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন। লক্ষণ হিসেবে এটা ভালো। আশা করি সংক্রমণ হার যদি বৃদ্ধি না পায় তাহলে মৃত্যুর হার কমে যাবে। বর্তমানে সারা দেশে দেড় হাজার রোগী আছে। আর বেড খালি আছে সাড়ে দশ হাজার। কাজেই এদিকেও আমরা অপেক্ষাকৃত ভালো অবস্থানে আছি।

[৭] আমাদের চিকিৎসা প্রদানের প্রস্তুতি তুলনামূলক ভালো। নর্থ সিটি করপোরেশনে এক হাজার বেডের হাসাপাতাল নির্মাণ করা হয়েছে। এটা মনে রাখতে হবে আমাদের অর্থনীতির চাকা ঘুরছে, কৃষিতে বাম্পার ফলন হয়েছে যা খুবই ভালো লক্ষণ।

[৮] জাহিদ মালেক আরও বলেন, আমাদের ভালো অবস্থানকে ধরে রাখতে হলে সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন, নিয়ম অনুসরণ করে না চললে এটা ধরে রাখা সম্ভব হবে না। উক্ত অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন মানিকগঞ্জ জেলা প্রশাসক এসএম ফেরদৌস, পুলিশ সুপার রিফাত রহমান শামীম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম মহীউদ্দীন, সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সালামসহ উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানবৃন্দ, সাংবাদিক, সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা। সম্পাদনা: মেহেদী হাসান

সর্বাধিক পঠিত