প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] রাজশাহীতে মে দিবসেও অসহায়ত্বের চোখের চাহুনিতে শ্রম বিক্রির জন্য অপেক্ষায় ছিল শ্রমিকরা

মঈন উদ্দীন: [২] করোনার কারণে লকডাউনে বেশ কয়েকদিন কাজ করতে না পারায় শ্রমিকরা বাধ্য হয়ে মে দিবসেও রাজশাহী নগরীর বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে খুব সকালে শ্রম বিক্রি করার জন্য অপেক্ষা করতে দেখা গেছে। করোনাকালে মে দিবসেও শ্রম বিক্রি করা ছাড়া তাদের যেন কোনো উপায় নেই। কাজের সন্ধানে রাজশাহীর বিভিন্ন এলকা থেকে নগরীতে এসেছেন কাজের খোঁজে কিন্তু অনেকে কাজ না পেয়ে বসে অসহায়ত্বের চোখের চাহুনিতে তাকিয়ে আছে এই বুঝি কেউ এসে কাজের জন্য ডাকবে। মে দিবসে কেন কাজে এসেছেন জানতে চাইলে তারা বলেন, ‘কিসের মে দিবস।

[৩] শ্রমিকরা জানান, ‘করোনার কারণে বেশ কিছুদিন কঠোর লকডাউন ছিল। কাজ করতে না পেরে বাড়িতেই বসে ছিলাম। পরিবারের মুখে খাবার তুলে দিতে হয়। লকডাউনে বেশ কয়েকদিন বাড়িতে খাবার ছিল না। তাই এখন লকডাউন কিছুটা সিথিল হওয়ায় মে দিবসে ঘরে বসে থাকলে পরিবারের মুখে খাবার তুলে দেয়া হবেনা। তাই অনেকটা বাধ্য হয়েই মে দিবসে কাজে এসেছি।’
মে দিবস সম্পর্কে জানতে চাইলে তারা বলেন, ‘এক সন্ধ্যায় না খেয়ে থাকলে কেউ খোঁজ রাখে না। আমাদের যে

[৪] শ্রমিক সংগঠন রয়েছে, এর নেতারা মাসে শুধু নির্ধারিত চাঁদাই শ্রমিকদের নিকট থেকে তুলেন। এছাড়া শ্রমিকদের দাবি-দাওয়া আদায়ের বিষয়ে তাদের কোনো ভ্রুক্ষেপ নেই। তাই মে দিবসে আমাদের কাজ না ঘরে বসে থাকলে কি আর চলবে?”

[৫] জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে থেকে সাইকেল চালিয়ে খাঁচা-কোদাল নিয়ে কাজের সন্ধানে রাজশাহী নগরীর বিভিন্ন এলাকা থেকে এসেছেন কাজের খোঁজে কিন্তু অনেকে কাজ না পেয়ে বসে অসহায়ত্বের চোখের চাহুনিতে তাকিয়ে আছে এই বুঝি কেউ এসে কাজের জন্য ডাকবে।

[৬] মে দিবসে কেন কাজে এসেছেন জানতে চাইলে তারা বলেন, ‘কিসের মে দিবস। আমি মে দিবস সম্পর্কে জানি না। লকডাউনে কাজ পাই না। প্রতিদিন রাজশাহী শহরে আসি কাজের সন্ধানে। কোন দিন কাজ পাই। আবার কোন দিন কাজ পাইনা, এ ভাবেই চলে আমাদের জীবন এই বলে দু’চোখের অশ্রু বিসর্জন দিয়ে চোখ মুছতে থাকলেন অনেকে।

[৭] উল্লেখ্য, প্রতিবছর ভিন্ন প্রতিপাদ্যে মহান মে দিবস পালিত হয়। আর এবারের মে দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয় ‘মালিক-শ্রমিক নির্বিশেষ মুজিব বর্ষে গড়ব দেশ’। করোনার এই কঠিন পরিস্থিতিতে শনিবার (পহেলা মে) বিশ্বব্যাপী পালিত হচ্ছে মহান মে দিবস, যা বিশ্বের শ্রমজীবী মানুষের অধিকার আদায়ের দিন হিসেবে পরিচিত।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত